বিশ্ব মানবাধিকার দিবসে আসছে ‘ছপাক’র ট্রেলার

সোমবার, ডিসেম্বর ৯, ২০১৯

বিনোদন ডেস্ক : ‘পদ্মাবতী’ সিনেমার অসামান্য সাফল্যের পর দীর্ঘদিন ছবি করেননি দীপিকা পাড়ুকোন। বিয়ে করেছেন, কিছুদিন সংসারও করেছেন চুটিয়ে। এবার আবার বড় পর্দায় ফিরছেন রণবীর সিং ঘরণী। ‘পিকু’ খ্যাত অভিনেত্রীকে দেখা যাবে ‘রাজি’ খ্যাত পরিচালক মেঘনা গুলজারের ‘ছপাক’ ছবিতে। শুধু মুখ্য ভূমিকাতেই নয়, ছবিটি প্রযোজনাও করছেন দীপিকা।

শুটিং শুরু হওয়ার পর থেকেই বি-টাউনে চর্চার কেন্দ্রে এই ছবি। ‘ছপাক’ সিনেমায় এক অ্যাসিড আক্রান্তের চরিত্রে অভিনয় করছেন দীপিকা। সেই লুক সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করার সঙ্গে সঙ্গে রীতিমতো হইচই পড়ে গিয়েছিলো। সিনেমাটিতে দীপিকার চরিত্রের নাম মালতি এবং স্বামী অমলের চরিত্রে রয়েছেন বিক্রান্ত মাসে।

এদিকে ‘ছপাক’ সিনেমার ট্রেলার মুক্তি পেতে চলেছে আগামীকাল মঙ্গলবার (১০ ডিসেম্বর)। এক টুইট বার্তায় ট্রেলার প্রকাশের কথা জানিয়েছেন অভিনেত্রী। কাকতালীয়ভাবে এ দিনটি হচ্ছে ‘বিশ্ব মানবাধিকার দিবস’। সিনেমার বক্তব্যের সঙ্গে ট্রেলার প্রকাশের দিবসের তাৎপর্য অনেকটাই প্রাসঙ্গিক।

সিনেমাটিতে মেক-আপের ছোঁয়ায় একেবার রূপ বদলে গিয়েছে দীপিকা পাড়ুকোনের। সুপারস্টারের তকমা ছেড়ে তিনি ছাপোষা লক্ষ্মী আগরওয়াল হয়ে উঠেছেন। খোদ লক্ষ্মী আগারওয়ালও স্বীকার করে নিয়েছিলেন যে, ঠিক যেন তারই মতো লাগছে দীপিকাকে।

মার্চ মাসে দীপিকা যখন তার ফার্স্ট লুক প্রকাশ করেন, তখন সকলেই অবাক হয়ে গিয়েছিলেন। তখন দীপিকা নিজেও বলেছিলেন, তার ক্যারিয়ারের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ছবি ‘ছপাক’। তাই সিনেমাটির ট্রেলার দেখার জন্য সাধারণ দর্শক থেকে শুরু করে বলিউডের অন্যান্য তারকারাও বেশ মুখিয়ে রয়েছেন।

প্রসঙ্গত, লক্ষ্মী আগারওয়াল মাত্র ১৫ বছর বয়সে অ্যাসিড হামালার শিকার হন। তারপর অনেক অস্ত্রোপচার ও একটানা চিকিৎসার পর ঘুরে দাঁড়ান। তার মতো আরো অনেকের জন্য লড়াই শুরু করেন। লক্ষ্মীর জীবনের এই গল্পই দেখাবে ‘ছপাক’। আগামী বছর জানুয়ারিতে মুক্তি পাওয়ার কথা ছবিটির।