সম্পর্ক ঠিক রাখতে ভিন্ন পদ্ধতি অবলম্বন

মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ৩, ২০১৯

লাইফস্টাইল ডেস্ক : সব দম্পতির মধ্যকার সম্পর্ক একরকম হয় না। কিছু কিছু দম্পতি অন্যদের থেকে আলাদা। আর এ কারণেই তারা অন্যদের থেকে সুখী। সুখী দম্পতিরা কিছু জিনিস অন্য দম্পতিদের থেকে ভিন্নভাবে করে থাকে, যা তাদের সম্পর্ককে সবসময় উজ্জল রাখে। আজ জেনে নিন কোন সম্পর্ক ঠিক রাখতে কি কি ভিন্ন পদ্ধতি অবলম্বন করে সুখী দম্পতিরা-

আজ তোমার দিনটি কেমন কাটল?’ এ প্রশ্ন সঙ্গীকে করাই যায়। অথচ অনেক দম্পতি আছে, এ বিষয়ে তাদের কোনো মাথাব্যথা নেই। সঙ্গী কী করল, কী করল না—তাতে তাদের কিছু যায়-আসে না। তারা নিজেদের ক্লান্তি নিয়েই ব্যস্ত। এই কাজ কিন্তু সুখী দম্পতিরা করে না। তারা যতই ব্যস্ত থাকুক না কেন, বাসায় ফিরে একে অন্যের সারা দিনের খোঁজখবর কিন্তু ঠিকই নেয়। আর এ কারণেই তাদের সম্পর্কে টান থাকে।

সঙ্গীকে সন্দেহ করার মতো কাজ সুখী দম্পতিরা ভুলেও করে না। কারণ, তারা একে অন্যকে বিশ্বাস করে। তারা জানে, এমন কোনো ভুল তাদের দিয়ে হবে না, যাতে সঙ্গী কষ্ট পায়। এ কারণেই তাদের সম্পর্কে ঝামেলা কম হয়।

মানুষ যা চায়, সব সে পায় না। এই জিনিসটা সবাই মেনে নিতে পারে না। তখনই শুরু হয় হতাশা। সুখী দম্পতিরা সমঝোতা করতে জানে। কোনো কিছু মনমতো না হলে তারা বিষয়টি বোঝার চেষ্টা করে। এ কারণেই তাদের সম্পর্কে আফসোস থাকে না।

সুখী দম্পতিরা একে অন্যের কথা ভালোভাবে শোনার চেষ্টা করে। এতে তাদের মধ্যকার বোঝাপড়া ভালো হয়। আপনি যদি তার কথা শোনার ধৈর্য না রাখেন, তাহলে সে কেন আপনার কথা শুনবে। তখনই শুরু হয় ঝামেলা। তাই এই কাজটিতে সুখী দম্পতিরা কখনোই ভুল করে না।

সুখী দম্পতিরা নিজেদের দোষ স্বীকার করে নেয়। কখনোই দোষ লুকানোর চেষ্টা করে না। অথচ অন্য দম্পতিরা সব সময় একে অন্যের দোষ খুঁজে বেড়ায় এবং নিজের দোষ অস্বীকারও করে।

সুখী দম্পতিরা নিজেদের ভালোবাসা লুকিয়ে না রেখে প্রকাশ করে। আর এ কারণে তাদের সম্পর্ক অনেক মজবুতও হয়ে থাকে।

সুখী দম্পতিরা একে অন্যের সাফল্যে খুশি হয়। তারা চায়, তার সঙ্গী জীবনে উন্নতি করুক। অন্য দম্পতির মতো সঙ্গীর উন্নতি দেখে তারা হতাশ হয় না।

সুখী দম্পতিরা একে অন্যের প্রশংসা করে। সুন্দর লাগলে বা স্মার্ট দেখালে তারা অকপটে বলে দেয়। যেখানে অন্য দম্পতিরা উল্টো সন্দেহ করতে শুরু করে। আর এ কারণেই তারা সুখী হতে পারে না।

সম্পর্কে হাসি-তামাশা না থাকলে সেটি প্রাণহীন হয়ে পড়ে। সুখী দম্পতিরা একসঙ্গে অনেক মজা করে। যেমন : একসঙ্গে বসে হাসির কোনো সিনেমা দেখা, গেম খেলা বা পুরোনো কোনো মজার স্মৃতি মনে করে হাসাটা সুখী দম্পতিদের অভ্যাস। এই কাজগুলো অন্য দম্পতিরা কালেভাদ্রে করে কি না সন্দেহ আছে।

সুখী দম্পতিরা একে অন্যের প্রতি নির্ভরশীল থাকে না। তাদেরও আলাদা একটা সময় থাকে, জগৎ থাকে। যেখানে তারা নিজেদের মতো করে আনন্দ করতে পারে। সঙ্গী এ বিষয়ে কোনো খবরদারিও করে না। এতটুকু দূরত্ব সম্পর্কের মাঝে প্রাণ ধরে রাখে।