লিবিয়ায় ড্রোন হামলায় গর্ভবতী নারীসহ নিহত ১১

সোমবার, ডিসেম্বর ২, ২০১৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : লিবিয়ায় খলিফা হাফতার নেতৃত্বাধীন সরাকারের সমর্থনে সংযুক্ত আরব আমিরাতের চালানো ড্রোন হামলায় অন্তত ১১ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। নিহতদরে মধ্যে ৯ শিশু ও এক গর্ভবতী নারী রয়েছেন।

তুরস্কের রাষ্ট্রীয় বার্তাসংস্থা আনাদোলু এক প্রতিবেদনে বলছে, লিবিয়ার মারজুক শহরের একটি বাড়িতে আমিরাতের ড্রোন হামলায় দুই নারী, ৯ শিশুসহ ১১ জন নিহত হয়েছেন। দেশটিতে জাতিসংঘের স্বীকৃতিপ্রাপ্ত সরকারি জোটের (জিএনএ) সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের অ্যাকাউন্ট থেকে রোববার এই হামলার তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।

শহরের একটি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ নিশ্চিত করে বলেছে, ৯ শিশু ও দুই নারীর মরদেহ সেখানে আনা হয়েছে। গত নভেম্বরে লিবিয়ার রাজধানী ত্রিপোলির কাছের একটি বিস্কুট কারখানায় হামলায় চালায় সংযুক্ত আরব অমিরাত। এতে ওই কারখানার অন্তত সাত শ্রমিক নিহত ও আরও ১৫ জন আহত হন।

জিএনএ কমান্ডার খলিফা হাফতার নেতৃত্বাধীন সরকারকে আরব অমিরাত সমর্থন দিয়ে আসছে বলে অভিযোগ উঠলেও দেশটি তা অস্বীকার করেছে।

২০১১ সালে লিবিয়ার স্বৈরশাসক মুয়াম্মার আল গাদ্দফির মৃত্যুর পর দেশটির শাসন ক্ষমতা দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে গেছে। এর মধ্যে একটি পক্ষ মিসর এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের মদদপুষ্ট লিবিয়ার পূর্বাঞ্চলের হাফতার বাহিনী এবং অন্য পক্ষ হলো জাতিসংঘের স্বীকৃতিপ্রাপ্ত ত্রিপোলির সরকার।