২০ হাজার টাকায় ‘নববধূ কিনে নিচ্ছেন’ পুরুষরা

রবিবার, ডিসেম্বর ১, ২০১৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : প্রতিবেশী দেশ ভারতের হরিয়ানা রাজ্যে পুরুষের তুলনায় নারীর সংখ্যা অনেকটাই কম। তাই বিয়ের জন্য পুরুষদের তাকিয়ে থাকতে হয় অন্য রাজ্যের মেয়েদের দিকে। এমনকি পাশের রাজ্যগুলো থেকে মেয়েদের কিনে আনা হয় বিয়ে করার জন্য।

এরইমধ্যে এক জরিপে দেখা যায়, এখন পর্যন্ত প্রায় ১ লাখ ৩০ হাজার নববধূ কিনেছেন হরিয়ানার পুরুষরা। এক একজন মেয়েকে মাত্র ২০ হাজার টাকার বিনিময়ে কেনা হয়ে থাকে।

ভারতের সংবাদমাধ্যমগুলোর খবরে বলা হয়েছে, সম্প্রতি ‘সেলফি উইথ ডটার ফাউন্ডেশন’ নামে একটি সংস্থার পরিচারিত জরিপ এমন তথ্য উঠে এসেছে বলে সংস্থাটির পরিচালক সুনীল জাগলানর জানিয়েছেন।

১২৫ জন স্বেচ্ছাসেবী ২০১৭ সালের জুলাই থেকে ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বর মাস পর্যন্ত এ জরিপ চালায়।

জরিপে দেখা যায়, বিয়ের জন্য কিনে আনা প্রায় ১ হাজার ৭০ জন নববধূ এরইমধ্যে শ্বশুরবাড়ি থেকে বিভিন্ন দামি মালামাল নিয়ে পালিয়ে গেছে। কিনে আনা মেয়েদের অনেকেই নাবালিকা।

মূলত, আসাম, পশ্চিমবঙ্গ, ঝাড়খণ্ড, বিহার, উড়িষ্যা, মহারাষ্ট্র, অন্ধ্রপ্রদেশ ও তামিলনাড়ু থেকে এইসব নববধূদের টাকার বিনিময়ে কিনে আনা হয়। অবিবাহিত এসব মেয়েদের দাম ধরা হয় মাত্র ২০ হাজার টাকা। দিল্লি ও পশ্চিমবঙ্গের বড় বড় দালাল চক্র এই ব্যবসার সঙ্গে জড়িত।

হরিয়ানার জাঠ গোষ্ঠীর লোকেরা এই নববধূদের কেনার ক্ষেত্রে বেশি আগ্রহী। এছাড়াও অন্যান্য গোত্রের লোকেরাও ২০ হাজার টাকা কিনে আনেন নববধূ।

২০১২ সালে হরিয়ানায় ১ হাজার ছেলের অনুপাতে মেয়ের সংখ্যা ছিল ৮৩২ জন। ২০১৯ সালের আগস্ট মাস পর্যন্ত রাজ্যটিতে ১ হাজার ছেলের অনুপাতে মেয়ের সংখ্যা ৯২০ জন।