ম্যানসিটিকে রুখে দিল নিউক্যাসল

শনিবার, নভেম্বর ৩০, ২০১৯

স্পোর্টস ডেস্ক : রোমাঞ্চকর একটি ম্যাচ মঞ্চস্থ হল। জেমস পার্কের দর্শকরা ম্যাচটি প্রাণভরে উপভোগ করল। দুইবার এগিয়ে যাওয়ার পরও ইংলিশ জায়ান্ট ম্যানচেস্টার সিটিকে জিততে দেয়নি নিউক্যাসল ইউনাইটেড। শেষ পযর্ন্ত পেপ গার্দিওলার শিষ্যরা মাঠ ছেড়েছে ২-২ ব্যবধানে।

শনিবার (৩০ নভেম্বর) জেমস পার্ক ভ্রমণে যায় গত আসরের চ্যাম্পিয়ন সিটি। কিন্তু চ্যাম্পিয়নস লিগের মতো প্রিমিয়ার লিগেও টানা দ্বিতীয় ম্যাচে পয়েন্ট ভাগাভাগি করতে হলো সিটিজেনদের। আক্রমণের ঢেউ তুলে গোল পেলেও প্রতি-আক্রমণে জয় বঞ্চিত থাকতে হলো তাদের।

খেলার ২৩ মিনিটে রহীম স্টার্লিংয়ের গোলে এগিয়ে যায় ম্যানসিটি। কিন্তু সেই ব্যবধান তারা ধরে রাখতে পারে মাত্র ২ মিনিটের জন্য। ২৫ মিনিটে আলমিরন বল পাঠান জেত্রো ভিলেমকে উদ্দেশ্য করে। ডাচ ডিফেন্ডার সুযোগ কাজে লাগিয়ে সমতায় ফেরায় নিউক্যাসলকে।

সিটি এরপর বেশ কয়েকবার চেষ্টা করলেও গোলের মুখ দেখেনি। বিরতি থেকে ফিরেও চেষ্টা অব্যাহত রাখে গার্দিওলার শিষ্যরা। আবার ৮২ মিনিটে কেভিন ডি ব্রুইনের চোখ ধাঁধানো গোল ফের এগিয়ে যায় সিটিজেনদের। বুকে বল রিসিভ করে সোজা বলি নেন এই বেলজিয়ান মিডফিল্ডার। কয়েক মুহূর্তের জন্য ডি ব্রুইনের এই জাদু দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে দেখা ছাড়া গতি ছিল না নিউক্যাসল গোলরক্ষক মার্তিন দুভরাভকার।

কিন্তু নাটকটা আরেকবার জমিয়ে তুলে স্বাগতিকরা। গার্দিওলার শিষ্যদের একবিন্দুও ছাড় না দিয়ে ফের সমতায় ফেরে নিউক্যাসল। এবার সিটি ব্যবধানটা ধরে রাখতে পারে মাত্র ৬ মিনিটের জন্য। ৮৮ মিনিটে আতসুর সেট পিস থেকে নেওয়া শটে বল পেয়ে সিটিজেনদের জালে জড়িয়ে দেন জোনজো শেলভি।

সমতায় ফিরে রক্ষণভাগে নেমে যায় নিউক্যাসল। যোগ করা সময়ে সহজ গোলের সুযোগ পেয়েও হাতছাড়া করেন স্টার্লিং। ডি ব্রুইনের পাস কাজে লাগাতে পারেননি ইংলিশ ফরোয়ার্ড। শেষ পযর্ন্ত ২-২ ব্যবধান নিয়ে মাঠ ছাড়ে দু’দল।