ভোট ব্যাংকে বিরূপ প্রভাব, আসামের এনআরসি বাতিল

শুক্রবার, নভেম্বর ২২, ২০১৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ছ’বছরের পরিশ্রম, ১৬০০ কোটি টাকা খরচ, হেনস্থা ও বহু মৃত্যুর ঘটনা, এতসব কিছুর পর তৈরি সম্প্রতি প্রকাশিত ভারতের আসাম রাজ্যের জাতীয় নাগরিকপঞ্জি তালিকা (এনআরসি) কার্যত বাতিল হতে বসেছে।  বৃহস্পতিবার ভারতের রাজ্যসভায় সেই ইঙ্গিত দিয়ে দেশটির কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ জানান, গোটা দেশের সঙ্গেই আসামে নতুন করে এনআরসি হবে।

এর সূত্র ধরে আসামের অথর্মন্ত্রী হিমন্তবিশ্ব শর্মাও জানান, রাজ্যে হওয়া এনআরসি পুরোপুরি বাতিল করে সারাদেশের সঙ্গে আসামেও নতুন করে এনআরসি হোক। সুপ্রিমকোর্টের নজরদারিতে আসামে হওয়া এনআরসি’র চূড়ান্ত তালিকায় বাদ যান ১৯ লাখ মানুষ। যাদের মধ্যে অন্তত ১৩-১৪ লাখই হিন্দু।

তালিকা প্রকাশ হতেই অস্বস্তিতে পড়ে যায় শাসক দল বিজেপি। ওই এনআরসি সঠিক নয়, সেই যুক্তিতে সরব হন হিমন্তরা। এনআরসি-তে বেশির ভাগ হিন্দুদের নাম বাদ পড়ায় ভোট ব্যাংকে বিরূপ প্রভাব পড়ছে বলে শীর্ষ নেতৃত্বকে জানায় আসাম বিজেপিও। চাপ বাড়াচ্ছিল সংঘ পরিবারও। এই পরিস্থিতিতে বৃহস্পতিবার আসামে নতুন করে এনআরসি হবে বলে বিতর্ক তৈরি করেন অমিত।

সরকারের ওই সিদ্ধান্তকে অবশ্য স্বাগত জানিয়েছে, এনআরসি মামলার মূল আবেদনকারী আসাম পাবলিক ওয়ার্কসও। তাদের দাবি ছিল, সব তথ্য ফের যাচাই করা হোক। এই মামলার পরের শুনানি ২৬ নভেম্বর।
সূত্র: আনন্দবাজার