বাঁচ‌তে চাইলে আন্দোলনের জন্য প্রস্তুত হোন: সালাম

শুক্রবার, নভেম্বর ২২, ২০১৯

ঢাকা: সরকার পেঁয়াজ- লবণসহ সব খে‌য়ে‌ ফে‌লে‌ছে এখন স্বা‌ধীনতা খাওয়ার প‌রিকল্পনা কর‌ছে মন্তব্য ক‌রে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুস সালাম বলেছেন, যদি বেঁচে থাকতে চান। সৎ পথে জীবন ধারণ করতে চান , স্বা‌ধীনতা রক্ষা কর‌তে চান তাহলে আগামীর আন্দোলনের জন্য সবাইকে প্রস্তুত হতে হবে।

শুক্রবার (২২ নভেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের উদ্যোগে বিএনপির চেয়ারপারসন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াসহ সকল রাজবন্দীদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে আয়োজিত মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন।

আব্দুস সালাম বলেন, এই সরকার জোর করে ক্ষমতায় এসেছে ঠিকই কিন্তু দেশ চালাতে পারছে না। সাভারে রানা প্লাজা ধ্বংসের সময় যারা নিহত হয়েছে তাদের কবরে দুর্বাঘাস গজিয়েছে। অথচ শ্র‌মিক‌রা সেই ক্ষতিপূরণের টাকা এখনো পায়নি। সেই টাকার জন্য এখনও শ্রমিকদের রাজপথে আন্দোলন করতে হয়। সে সময়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন মহিউদ্দিন খান আলমগীর ‘মখা আলমগীর’ তিনি বলেছিলেন সেই রানা প্লাজা নাকি বিএনপি ধাক্কা দিয়ে ফেলে দিয়েছে। এরকম সরকার এই দেশে আগে কখনো আসেনি। এ সরকার বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে আটক করে রেখেছে। তারেক রহমানকে দেশে আসতে না দেওয়া আর বিএনপি নেতাকর্মীদের মামলা দেওয়া ছাড়া কিছুই পারে না।

বর্তমান সরকারের উদ্দেশ্যে আব্দুস সালাম বলেন, সরকার বাংলাদেশের সীমান্ত ভালো করে রক্ষা করতে পারছেন না। যার কারণে ভারতের জনগণ অবৈধভাবে বাংলাদেশে প্রবেশ করছে। এই সরকারের কোন সাহস নাই যে ভারতের হাই কমিশনারের কাছে এর প্রতিবাদ জানায়।

তিনি বলেন, যদি দেশকে বাঁচাতে হয়, দেশের মানুষকে বাঁচাতে হয় তাহলে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা ছাড়া সম্ভব হবে না।

শ্রমিকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আপনারা যে বাঁচতে চান, নিজের অধিকার ফিরে পেতে চান, এই সরকার তা করতে দেবেনা। কারণ এই সরকার শুধু নিজেকে নিয়ে ভাবে শ্রমিক মেহনতি মানুষের কথা ভাবে না। এই সরকার একটা খাই খাই সরকার। সবকিছু শুধু খাই খাই করে। পেঁয়াজ খেয়ে ফেলেছে, লবণ খেয়ে ফেলেছে, দুধ খেয়ে ফেলেছে, ডিম খেয়ে ফেলেছে, শ্রমিকদের পাওনাটা খেয়ে ফেলেছে। এখন বাংলাদেশের স্বাধীনতাটাও খাই খাই করছে। তাই আগামীর আন্দোলনের জন্য আমাদেরকে প্রস্তুত হতে হবে।

এ সময় তিনি দলবল নির্বিশেষে সকলকে আন্দোলনের আহ্বান জানিয়ে বলেন, যদি নি‌জে‌দের অধিকারকে রক্ষা করতে চান, স্বাধীনতাকে রক্ষা করতে চান, তাহলে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে। এবং দলবল নির্বিশেষে রাজপথে আন্দোলন করে সরকার হঠাতে হবে।

জাতীয়তাবাদী চালক দলের সভাপতি জসিম উদ্দিন কবিরের সভাপতিত্বে ও দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও আন্দোলনের সভাপতি কে এম রকিবুল ইসলাম রিপন এর সঞ্চালনায় মানববন্ধনে আরো উপস্থিত ছিলেন বিএনপি’র চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপি’র সহ-সভাপতি ফরিদ উদ্দিন, মৎস্যজীবী দলের সদস্য অধ্যক্ষ সেলিম মিয়া, কৃষকদলের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য লায়ন মিয়া মোহাম্মদ আনোয়ার, মুক্তার আকন্দ, জনতা দলের সাধারণ সম্পাদক রায়হান ইসলাম রাজু সহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।