বিক্ষোভে উত্তাল হংকং, ছাত্র-পুলিশ ব্যাপক সংঘর্ষ

বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১৪, ২০১৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : হংকংয়ে সরকারবিরোধী বিক্ষোভ দিন দিন আরও ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে। বৃহস্পতিবার চতুর্থ দিনের চলা অচলবস্থায় দেশটিতে সহিংস বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে।

এদিন নিরাপত্তাজনিত শঙ্কায় সরকারি নির্দেশক্রমে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও রেলসেবা বন্ধ রাখা হয়েছে। দফায় দফায় সংঘর্ষের জেরে ক্রস হারবার চ্যানেল অবরোধ করে হংকংয়ের সঙ্গে চীনের মূল ভূখন্ডের যোগাযোগ বন্ধ করে দিয়েছে আন্দোলনকারীরা।

পাঁচ মাস ধরে চলমান এই আন্দোলনে বৃহস্পতিবার আন্দোলনকারীদের সবচেয়ে সহিংস অবস্থায় দেখা গেছে বলে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন মিডিয়ার খবরে উঠে এসেছে। বিভিন্ন যানবাহন ও সরকারি ভবনে অগ্নিসংযোগের পাশাপাশি আন্দোলনকারীরা প্রধান প্রধান বাণিজ্যকেন্দ্রেও ভাঙচুর চালিয়েছে।

বিক্ষুব্ধ আন্দোলনকারীদের কয়েকজনকে পুলিশ স্টেশনে পেট্রোলবোমা ছুড়তেও দেখা গেছে। বিক্ষোভকারীদের লক্ষ্য করে পুলিশ টিয়ারগ্যাস ছুড়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

গণতন্ত্রপন্থীদের গত পাঁচ মাসের বিক্ষোভ-সংঘর্ষ পরিস্থিতিকে শহরের ‘আইনের শাসন পুরোপুরি ভেঙে পড়ার প্রান্তে’ বলে অ্যাখ্যা দিয়েছে পুলিশ। বুধবারে সংঘর্ষে কমপক্ষে ৬৪ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

গত মঙ্গলবার মুখোশ পরিহিত এক হাজারের বেশি বিক্ষোভকারী মধ্যাহ্নভোজের সময় সেন্ট্রাল এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল বের করে। এ সময় তারা শহরের সর্বোচ্চ ভবন ও বিলাসবহুল আবাসিক ভবনগুলোর নিচের সড়ক বন্ধ করে দেয়। সিটি ইউনিভার্সিটিতে বিক্ষোভকারীরা সেতুর ওপরে ইট জড়ো করে এবং পেট্রল বোমা ছুড়ে মারে।

এছাড়া চাইনিজ ইউনিভার্সিটি ক্যাম্পাসের ভেতরে ও প্রবেশ মুখের সড়কগুলোতে ইটের টুকরো ও আবর্জনা ছড়িয়ে রাখা হয়। কিছু সড়কে আগুনও জ্বালায় বিক্ষোভকারীরা।