যে ৩ অভ্যাসে হতে পারে মৃত্যু

মঙ্গলবার, নভেম্বর ১২, ২০১৯

সবাই সুস্থ থাকতে চায়। তাই সুস্থ থাকতে আমরা প্রতিদিন কত কিছুই না করি। নিয়মিত শরীরচর্চা, নানা রকমের ডায়েট মেনে চলা, চিকিত্সকের পরামর্শ মেনে ওষুধ খাওয়া – সবই তো সুস্থ থাকার জন্য!

কিন্তু আমাদের কিছু অসাবধানতা বা বাজে অভ্যাসের জন্য নিজের অজান্তেই বাড়ছে অকাল মৃত্যুর ঝুঁকি! এবার জেনে নিন এমন ৩টি বাজে অভ্যাস সম্পর্কে।

রাত জাগা

তরুণ প্রজন্মের মধ্যে রাত জাগার অভ্যাসটা অনেক বেশি। সারাদিন ক্লাস করে এসেও রাতে না ঘুমিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় চ্যাট বা অন্যান্য বিষয় ঘাঁটাঘাঁটি করে রাত কাটিয়ে দেয়ার অভ্যাস গড়ে তুলেছেন অনেকেই। তাছাড়া বর্তমানে বিভিন্ন অফিস-কাছাড়িতেও ‘নাইট শিফট’-এ কাজের চাপ আগের চেয়ে অনেকটাই বেড়েছে। কিন্তু অতিরিক্ত রাত জাগার ফলে অকালে মৃত্যুর ঝুঁকি অনেক বেড়ে যায়। বিভিন্ন গবেষণার মাধ্যমে গবেষকরা বার বার এই বিষয়টির প্রমাণ দিয়েছেন, সতর্ক করেছেন।

বিশেষজ্ঞদের মতে, দিনের পর দিন রাত জাগার অভ্যাস আয়ু কমিয়ে দেয় খুব দ্রুত। সেই সঙ্গে নানা রকমের শারীরিক সমস্যারও জন্ম দেয়।

দীর্ঘ সময় চেয়ারে বসে থাকা

ইদানীং প্রায় সব অফিসেই এক নাগাড়ে চেয়ারে বসে কাজ করতে হয় দীর্ঘ সময়। ফলে অনেকেরই ভুঁড়ি বেড়ে যায় খুব দ্রুত। সেই সঙ্গে দেখা দেয় চোখের ও পিঠের নানা সমস্যা। একটানা বেশি সময় বসে থাকার অভ্যাস শরীরের জন্য খুবই ক্ষতিকর। এতে হার্টের সমস্যা হওয়ার আশঙ্কা অনেকটাই বাড়িয়ে দেয়। সেই সঙ্গে অতিরিক্ত মেদ জমার ফলে নানা রকমের স্বাস্থ্য সমস্যা দেখা দেয় যা অকালে মৃত্যুর ঝুঁকি বাড়িয়ে দেয় অনেকটাই।

বালিশের নিচে বা বুক পকেটে ফোন রাখা

মোবাইল ফোন বর্তমানে অত্যন্ত অপরিহার্য একটি জিনিস। এই মোবাইল ফোন জামার বুক পকেটে রেখে সারাদিনই নিজের নানা কাজের মধ্যে ডুবে থাকেন অনেকেই। আর রাতে ঘুমানোর সময় বালিশের নীচে ফোন রাখাটাও অনেকেরই অভ্যাস। কিন্তু বুক পকেটে ফোন রাখা বা বিছানায় বালিশের নিচে ফোন রাখার অভ্যাস আপনার আয়ু কমিয়ে দিচ্ছে খুব দ্রুত। মোবাইল ফোনের ক্ষতিকর রেডিয়েশন আমাদের হার্ট ও মস্তিষ্কের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর।

তাই দ্রুত এই তিন অভ্যাস ত্যাগ করুন। থাকুন সুস্থ।