২৩ নভেম্বর ‘হিংসামুক্ত বিশ্ব সম্প্রীতি দিবস’ পালন করবে বাংলাদেশ বন্ধু সমাজ: দেশবাসীকে অংশগ্রহনের আহ্বান

শনিবার, নভেম্বর ৯, ২০১৯

ঢাকা: বিশ্ববাসীর পক্ষে আগামী ২৩ নভেম্বর জাতীয় প্রেসক্লাবের ৩য় তলার আব্দুস সালাম হলে ‘হিংসামুক্ত বিশ্ব সম্প্রীতি দিবস’ পালন করবে বাংলাদেশ বন্ধু সমাজ। দিবসটি উদযাপন করার জন্য সম্মানিত দেশবরেণ্যদের আমন্ত্রণ জানিয়ে আজ শনিবার (৯ নভেম্বর) রাজধানীর সেগুন বাগিচাস্থ বাংলাদেশ শিশু কল্যাণ পরিষদে সংবাদ সম্মেলন করে সংগঠনটি। সংবাদ সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ বন্ধু সমাজের সভাপতি এফ. আহমেদ খান রাজীব।
সভাপতির বক্তব্যে তিনি বলেন, পৃথিবীর সমস্ত কলহ-দ্বন্দ্ব ও সংঘাত রোধে মানুষের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টির চক্রান্তকারী মানুষের প্রকাশ্য শত্রু অভিশপ্ত ইবলিশ শয়তানকে পরাস্ত করতে হবে। এছাড়া সৌহার্দ্য, সম্প্রীতি ও বন্ধুত্বের পৃথিবী গড়ার সূচনায় হিংসামুক্ত বিশ্ব সম্প্রীতি দিবস আন্তর্জাতিকভাবে প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশকে সম্প্রীতি ও বন্ধুত্বের দেশের মডেল সৃষ্টিতে প্রতি বছর অন্তত এক দিন হিংসা বর্জন করে সকল ভেদাভেদ ভুলে নৈতিকতার আলোকে উৎসবমুখর পরিবেশে জাতীয়ভাবে ‘হিংসামুক্ত বিশ্ব সম্প্রীতি দিবস’ উদযাপন করা প্রয়োজন। এতে অবশ্যই কলহ-দ্বন্দ্ব-সংঘাত প্রতিরোধ করে নতুন প্রজন্মের জন্য সৌহার্দ্য, সম্প্রীতি ও বন্ধুত্বের পরিবেশ প্রাপ্তি হবে।
রাজীব খান আরো বলেন, চলমান সময়ে, যুগের প্রয়োজনে সকল সংঘাত ও সন্ত্রাসমুক্ত সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্প্রীতি ও বন্ধুত্বের পরিবেশ সৃষ্টির সহযোগিতায় বাংলাদেশ বন্ধু সমাজকে সকল পক্ষের সেতু-বন্ধন বিবেচনায় সহযাত্রী সেচ্ছাসেবী সামাজিক সংগঠন হিসাবে সাংবিধানিক বৈধতাসহ জাতীয়ভাবে স্বীকৃতি প্রদান অথবা জাতীয়করণ করার জন্য শান্তিকামী দেশবাসীর পক্ষে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীসহ সকল নীতি-নির্ধারক মহোদয়গণের অনুরোধ করছি।
সংবাদ সম্মেলনে এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন- ড. রুহুল আমিন চৌধুরী, হাবিবুর রহমান, কলমযোদ্ধা লিয়াকত আলী খান, এড. আতাউর রহমান, এড. নূর নবী পাটোয়ারী, মোঃ আব্দুর রাজ্জাক, সৈয়দ হারুন-অর-রশিদ, মঞ্জুর হোসেন ঈসা, সাংবাদিক ডি এম আমিরুল ইসলাম অমর প্রমুখ।