ছেলেকে মারধরের বিচার চাওয়ায় কৃষককে পিটিয়ে হত্যা

শুক্রবার, অক্টোবর ১৮, ২০১৯

হবিগঞ্জ: হবিগঞ্জে মানসিক প্রতিবন্ধী ছেলেকে মারধরের নালিশ দিতে গিয়ে প্রতিপক্ষের বেধড়ক পিটুনিতে মতি মিয়া (৫৫) নামে এক কৃষক নিহত হয়েছেন।
নিহত মতি মিয়া সদর উপজেলার কালনী গ্রামের শুকুর আলীর ছেলে।
নিহতের পারিবারিক সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে মতি মিয়ার ছেলে মানসিক প্রতিবন্ধী রতন মিয়াকে একই গ্রামের ফুল মিয়ার ছেলে মারধর করে।
রাত ৮টার দিকে মতি মিয়া নালিশ নিয়ে ফুল মিয়ার কাছে যান। এ সময় রাস্তায় পেয়ে ফুল মিয়াকে ছেলেকে মারার বিষয়ে জিজ্ঞেস করেন। এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়।
পরে এ নিয়ে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এ সময় ফুল মিয়ার পক্ষে তার স্বজনরাও মতি মিয়াকে মারধর শুরু করেন। এতে মতি মিয়া মাটিতে পড়ে যান।
খবর পেয়ে তার স্বজনরা ঘটনাস্থলে এসে মতি মিয়াকে উদ্ধার করে সদর আধুনিক হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্মরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
নিহতের চাচাতো ভাই ফরিদ মিয়া জানান, মানষিক প্রতিবন্ধী ছেলেকে মারধর করার বিচার দিতে গিয়ে প্রতিপক্ষের লোকজন তাকে বেধড়ক পিটিয়ে হত্যা করেছে।
সদর মডেল থানার ওসি মো. মাসুক আলী জানান, তুচ্ছ বিষয় নিয়ে দু’জনের মধ্যে ধাক্কাধাক্কি হয়েছে। এতে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন।
এক পর্যায়ে তাকে সদর আধুনিক হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্মরত চিকিৎসক মৃতু ঘোষণা করেন। তবে এ ব্যাপারে এখনও কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি।
সদর আধুনিক হাসপাতালের আরএমও ডা. শামীমা আক্তার জানান, হাসপাতালে মতি মিয়াকে মৃত অবস্থায় নিয়ে আসা হয়। নিহতের স্বজনরা জানিয়েছেন তাকে মারধোর করা হয়েছে।
ময়নাতদন্ত ছাড়া এ ব্যাপারে কিছু বলা যাবে না। রাতে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।