সিরিয়া অভিযান বন্ধে তুরস্কে মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট, কী করবে আঙ্কারা?

শুক্রবার, অক্টোবর ১৮, ২০১৯

নিউজ ডেস্ক: সিরিয়ার উত্তরপূর্বাঞ্চলে কুর্দিদের বিরুদ্ধে চলা সামরিক অভিযান বন্ধে প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগানকে রাজি করাতে তুরস্কে গেছেন মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স।

বৃহস্পতিবার এরদোগানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন তিনি। কিন্তু তুর্কি কর্মকর্তারা অভিযান চলবে বলে জানিয়ে দিয়েছেন।

এর আগে এরদোগানকে এ অভিযান শুরু না করার জন্য চিঠি দিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। কিন্তু এরদোগান এর কোনো তোয়াক্কা না করে বরং চিঠি ডাস্টবিনে ফেলে দেন। সিরিয়া অভিযান চলামান রাখেন।

এরপর এরদোগানকে যুদ্ধবিরতি করার আহ্বান জানিয়েছিলেন মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স। কিন্তু সে আহ্বানও প্রেসিডেন্ট এরদোগান প্রত্যাখান করেন। তারপরই তাকে রাজি করাতে তুরস্কে হাজির হন পেন্স।

এরদোগানের সঙ্গে বৈঠকের আগে পেন্স এবং মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেননি। তবে এক তুর্কি কর্মকর্তা জানান, যুক্তরাষ্ট্রের ওই একই দাবি নিয়েই তারা তুরস্কে এসেছেন। তবে সন্ত্রাসী সংগঠনের সঙ্গে আলোচনা কিংবা চলমান অভিযান থেকে পিছু হটার বিষয়টি আলোচসূচিতে নেই।

সীমান্ত নিরাপদ, সিরিয়ার অখণ্ডতা ও সিরিয়ান শরণার্থীদের নিরাপদে ফিরিয়ে দিতে চলতি মাসের ৯ অক্টোবর থেকে উত্তর সিরিয়ায় অপারেশন পিস স্প্রিং শুরু করেছে তুর্কি সরকার। উত্তর সিরিয়ার পূর্ব ফোরাত নদী পিকেকে/পিওয়াইডি ও ওয়াইপিজে মুক্ত করতে চায় আঙ্কারা।

৩০ বছর ধরে পিকেকে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে তুরস্ক। পিকেকে সংগঠনকে সন্ত্রাসী হিসেবে তুরস্ক, যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন তালিকাভুক্ত করেছে। ওই সংগঠনটির হাতে এ পর্যন্ত নারী, কিশোর ও শিশুসহ ৪০ হাজার মানুষ নিহত হয়েছেন।