সদরঘাটে তরকারি কাটা নিয়ে লঞ্চের বাবুর্চিকে কুপিয়ে খুন

শুক্রবার, অক্টোবর ১৮, ২০১৯

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা): সদরঘাট টার্মিনালে একটি লঞ্চের রান্নাঘরে তরকারি কাটা নিয়ে কথা কাটাকাটির জের ধরে রুবেল মুন্সি (২২) নামে এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

শুক্রবার দুপুরে টার্মিনালের ২নং ঘাটে কিত্তনখোলা-২ নামের লঞ্চে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতের রুবেল মুন্সির বাড়ি পটুয়াখালি সদর থানাধীন শিয়ালী এলাকায়। কিত্তনখোলা-২ লঞ্চে তিনি বাবুর্চি হিসেবে কাজ করতেন।

জানা গেছে, বাবুর্চির সহকারী ইসতি (২০) নামের এক যুবক বটি দিয়ে কুপিয়ে রুবেলকে হত্যা করে। পরে সে দৌড়ে লঞ্চ থেকে পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মিটফোর্ড হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

কিত্তনখোলা-২ লঞ্চের কর্মচারী আবু তালেব জানান, নিহত রুবেল ছিলেন লঞ্চের বাবুর্চি আর ঘাতক

ইসতি তার সহকারী হিসেবে কাজ করতো।

তিনি আরও জানান, শুক্রবার দুপুরে লঞ্চের রান্নাঘরে অন্যান্য কর্মচারীদের নিয়ে রান্নার আয়োজন চলছিল। এ সময় তরকারি কাটা নিয়ে রুবেলের সঙ্গে ইসতির কথা কাটাকাটি হয়। রুবেল গালমন্দ করলে ইসতি ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে। একপর্যায়ে তরকারি কাটার বটি দিয়ে রুবেলকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে খুন করে ইসতি। রুবেল মেঝেতে পড়ে গেলে ইসতি লঞ্চ থেকে দৌড়ে পালিয়ে যায়। এ সময় কয়েকজন স্টাফ তার পিছু নিলেও তাকে ধরা যায়নি।

দক্ষিন কেরানীগঞ্জ থানার এসআই ইমরান উকিল জানান, লঞ্চের ভেতর লাশ পড়ে ছিল। খবর পেয়ে

পুলিশ লাশ উদ্ধার করে করে ময়নাতদন্তের জন্য মিটফোর্ড হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য লঞ্চের চারজন স্টাফকে থানায় আনা হয়েছে।

এসআই আরও জানান, প্রাথমিকভাবে তারা জানতে পেরেছেন তরকারি কাটা নিয়ে বাবুর্চি রুবেলকে

ইসতি নামে একজন হোটেল বয় কুপিয়ে হত্যা করে পালিয়েছে। তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।