তিন বছরের সর্বনিম্নে সূচক: দিশেহারা বিনিয়োগকারীরা

সোমবার, অক্টোবর ১৪, ২০১৯

ঢাকা: সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবসে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের পতনে লেনদেন শেষ হয়েছে। এদিন লেনদেনের শুরুতে উত্থান-পতন থাকলেও এক ঘন্টা ৪০ মিনিট পর মিনিট পর সেল প্রেসারে টানা নামতে থাকে সূচক। সোমবার লেনদেন শেষে সূচকের পাশাপাশি কমেছে বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ার দর। তবে টাকার অংকে লেনদেন আগের দিনের তুলনায় কিছুটা বেড়েছে। আজ দিন শেষে ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ১ কোটি ৬৯ লাখ ৮৪ হাজার টাকা।

উল্লেখ্য, এর আগে ২০১৬ সালের ১৭ নভেম্বর ডিএসই’র সূচক ছিল ৪৬৯৮.৫৪ পয়েন্ট। অর্থাৎ বিগত প্রায় ৩ বছরের সর্বনিম্ন স্থানে রয়েছে সূচক।

আজ দিন শেষে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ৫০ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৪৭১১ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ১৭ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১০৮১ পয়েন্টে এবং ডিএসই ৩০ সূচক ১৯ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১৬৬৯ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩৫২টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৮০টির, কমেছে ২৩১টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪১টির। আর দিন শেষে লেনদেন হয়েছে ২৯৯ কোটি ৮৯ লাখ ৭৭ হাজার টাকা।

এর আগের কার্যদিবস দিন শেষে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স ৪৯ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ৪৭৬১ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ১১ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ১০৯৯ পয়েন্টে এবং ডিএসই ৩০ সূচক ১৫ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ১৬৮৯ পয়েন্টে। আর ওইদিন লেনদেন হয়েছিল ২৯৮ কোটি ১৯ লাখ ৯৩ হাজার টাকা। সে হিসেবে আজ ডিএসইতে লেনদেন কমেছে ১ কোটি ৬৯ লাখ ৮৪ হাজার টাকা।

এদিকে দিন শেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সাধারণ মূল্য সূচক সিএসইএক্স ৬৪ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৮ হাজার ৭৫০ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ২৩৫টি কোম্পানির ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৫৯টির, কমেছে ১৪৫টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩১টির। আর দিন শেষে লেনদেন হয়েছে ১৩ কোটি ২০ লাখ ৬৩ হাজার টাকা।