শিবগঞ্জে ২ ব্যবসায়ীসহ সাবেক ম্যানেজারের বিরুদ্ধে ব্যাংক জালিয়াতি আরও ৩ মামলা

রবিবার, অক্টোবর ১৩, ২০১৯

জিএম মিজান, শিবগঞ্জ (বগুড়া) প্রতিনিধি : বগুড়ায় বহুল আলোচিত রূপালী ব্যাংক মহাস্থান শাখায় অনিয়মের মাধ্যমে জালিয়াতি করে টাকা আত্মসাতের খবর আবারও ফাঁস হয়েছে। এতে ওই ব্যাংকের সাময়িক বরখাস্ত সাবেক ম্যানেজার সাসপেন্ডকৃত জোবাইনুর রহমানের বিরুদ্ধে সোয়া ২ কোটি টাকা আত্মসাতের আরও ৩টি মামলা হয়েছে।

দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) বগুড়া জেলা সমন্বিত কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক রবীন্দ্রনাথ চাকী বৃহস্পতিবার মামলা ৩টি করেন। এ নিয়ে ওই ম্যানেজারের বিরুদ্ধে ৬টি মামলা করা হলো।

দায়ের করা মামলা গুলোর একটিতে উল্লেখ করা হয়, অভিযুক্ত ম্যানেজারসহ ৫জন যোগসাজশ করে বিভিন্ন সময় গ্রাহকের আমানতের ১ কোটি ১৬ লাখ ১৩ হাজার ১২২ টাকা আত্মসাৎ করেন। ব্যাংকের গ্রাহকের সঞ্চয়ী হিসাব নং ৪ ও ১৪৫৮ এবং চলতি ৫১৬, সিসি হিসাব নং ৩৭, ৩৮ ও ৬৫ থেকে জালিয়াতির মাধ্যমে ওই টাকা উত্তোলন করে আত্মসাৎ করা হয়। এ মামলায় ম্যানেজার ছাড়া অন্য চার আসামি হলেন- জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার ব্যবসায়ী মহাস্থান পূর্বপাড়া গ্রামের মৃত আয়েত আলীর পুত্র মেসার্স জাহিদ কনস্ট্রাকশনের মালিক জাহিদুর রহমান ও একই এলাকার বাসিন্দা মহাস্থান দক্ষিণপাড়া গ্রামের মৃত্য রুস্তম আলীর পুত্র মেসার্স ইয়া রাব্বী স্টোরের মালিক ব্যবসায়ী ফজলুর রহমান মন্টু। রূপালী ব্যাংক মহাস্থান শাখার সাবেক প্রিন্সিপাল অফিসার বর্তমানে পাবনা জেলায় জোনাল অফিসে কর্মরত আমজাদ হোসেন, বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার আগুনেতাইর গ্রামের শাহিনুর রহমান।

আরেক মামলায় ভুয়া এফডিআর দেখিয়ে ১ কোটি ৫ লাখ ৬০ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগ আনা হয়েছে। ম্যানেজার ছাড়া এই মামলার অপর ২ জন হলেন- রূপালী ব্যাংক মহাস্থান শাখার সাবেক সিনিয়র অফিসার বর্তমানে জেলার মোকামতলা শাখায় কর্মরত ইশরাত জাহান ও জেলার সোনাতলা উপজেলার আগুনে তাইড় এলাকার শাহিনুর রহমান। অপর মামলায় ম্যানেজারসহ তিনজনের বিরুদ্ধে ভুয়া পে-অর্ডারের মাধ্যমে ৪ লাখ ৬৬ হাজার ৪০০ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ করা হয়েছে।

এ মামলায় অপর ২ আসামি হলেন- ব্যাংকের সাবেক সিনিয়র অফিসার ইশরাত জাহান ও শিবগঞ্জ উপজেলার ব্যবসায়ী জাহিদুর রহমান। এর আগে গ্রাহকদের মোটা অঙ্কের টাকা আত্মসাতের ঘটনায় গত বছরের ৭ ফেব্রুয়ারি ব্যাংক কর্তৃপক্ষ ম্যানেজার জোবাইনুর রহমানকে সাময়িক বরখাস্ত এবং বগুড়া সদর থানায় মামলা করে।