আরও ২০০ জন বিচারক নিয়োগ দিচ্ছে সরকার

রবিবার, অক্টোবর ১৩, ২০১৯

ঢাকা: প্রায় ৩০ লাখ মামলার জট, বিচারপ্রার্থীদের ভোগান্তি কমানো ও বিচার প্রক্রিয়া দ্রুততর করতে নিম্ন আদালতে আরও ১০০ সহকারী জজ নিয়োগ দেবে সরকার। এরই ধারাবাহিকতায় ত্রয়োদশ বাংলাদেশ জুডিসিয়াল সার্ভিস (বিজেএস) পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তির পাশাপাশি নিয়োগের প্রক্রিয়ায় চূড়ান্ত করা হয়েছে। পাশপাশি দ্বাদশ বিজেএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ আরও ১০০ সহকারী জজ নিয়োগের বিষয়টি বর্তমানে পুলিশ ভেরিফিকেশন পর্যায়ে রয়েছে।

চলতি বছর দুই দফায় আইন মন্ত্রণালয় থেকে বিচারক নিয়োগের জন্য বিজেএস কমিশনকে সুপারিশ করে চিঠি দেয়া হয়। এরপরই ত্রয়োদশ বিজেএস পরীক্ষার মাধ্যমে নিয়োগের কার্যক্রম শুরু হয়। আগামী ১৫ থেকে ৩০ অক্টোবর অনলাইনের মাধ্যমে এ পরীক্ষার অংশগ্রহণের আবেদন গ্রহণ করা হবে।

আবেদনের ক্ষেত্রে যেকোনও স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইন বিষয়ে ন্যূনতম দ্বিতীয় শ্রেণির স্নাতক অথবা দ্বিতীয় শ্রেণির এলএলএম ডিগ্রিধারী ৩২ বছর বয়সী যে কেউ আবেদন করতে পারবেন। এজন্য এবারের পরীক্ষার সিলেবাস পরিবর্তন করে সরকার গত ২৯ সেপ্টেম্বর গেজেটও প্রকাশ করেছে।

বিষয়টি সম্পর্কে বিজেএসসি’র সচিব (জেলা জজ) সৈয়দ জাহেদ মনসুর গণমাধ্যমকে বলেন, ‘দ্বাদশ বিজেএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ আরও ১০০ সহকারী জজ নিয়োগের বিষয়টি চূড়ান্ত করা হয়েছে। উত্তীর্ণদের ভেরিফিকেশন চলছে। আশা করি দ্রুতই নিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ হবে।’

তিনি জানান, মন্ত্রণালয়ের চাহিদা অনুযায়ী ৯ অক্টোবর ত্রয়োদশ বিজেএস নিয়োগ পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি চূড়ান্ত করে প্রকাশ করা হয়েছে। আগামী বছরের শুরুর দিকে প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এর পরই উত্তীর্ণদের লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা নেয়া হবে। সব কিছু যথাযথভাবে সম্পন্ন হলে ২০২১ সালে এই নিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ হবে বলে জানান তিনি।

সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, বর্তমানে দেশের নিম্ন আদালতে প্রায় ১ হাজার ৭৫৩টি অনুমোদিত বিচারকের পদ আছে। বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ে প্রেষণে থাকা শতাধিক বিচারক নিয়ে বর্তমানে ন্নি আদালতে ২০০ বিচারকের পদ শূন্য রয়েছে। এরই প্রেক্ষিতে সর্বোচ্চ আদালত প্রশাসন থেকে আইন মন্ত্রণালয়ে বিচারক নিয়োগের জন্য প্রস্তাব পাঠানো হয়েছিল।

এ ব্যাপারে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক গণমাধ্যমকে বলেন, ‘মামলাজট কমাতে ও বিচারপ্রার্থীদের ভোগান্তি নিরসনের বিষয়টি মাথায় রেখে সরকার নিম্ন আদালতে আরও বিচারক নিয়োগের ব্যাপারে সচেষ্ট রয়েছে।

আইনমন্ত্রী জানান, ২০০৯ সাল থেকে গত এক দশকে নিম্ন আদালতে মোট ৮৭৬ জন সহকারী জজ নিয়োগ দেয়া হয়েছে। নতুন করে আরও ১০০ জন সহকারী জজ নিয়োগের কার্যক্রম দ্রুতই সম্পন্ন হবে।

আদালত সূত্রে জানা যায়, চলতি বছরের জুন নাগাদ দেশের নিম্ন আদালতে ৩০ লাখ ৮৮ হাজার ২৯১টি মামলা বিচারাধীন আছে। সঙ্গে প্রতিদিনই যুক্ত হচ্ছে নতুন মামলা। বিচারক সংকটে এইসব মামলার সামগ্রিক বিচারকাজ বিলম্বিত হচ্ছে। আর তাতে ভোগান্তিতে পড়ছেন বিচারপ্রার্থীরা।