ভারতের জাতীয় নাগরিকপঞ্জি নিয়ে উদ্বেগের কিছু নেই : মোদি

শনিবার, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতের জাতীয় নাগরিকপঞ্জি বা এনআরসি নিয়ে বাংলাদেশের উদ্বেগের কিছু নেই বলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আশ্বস্ত করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।সম্প্রতি আসামে যে ১৯ লাখ ৬ হাজার ৬৫৭ জন মানুষ নাগরিকপঞ্জি বা এনআরসি থেকে বাদ পড়েছেন।

লোটে নিউইয়র্ক প্যালেসে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে একথা বলেন মোদী। নিউইয়র্কে স্থানীয় সময় শুক্রবার দুপুরে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বৈঠকের বিষয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন সাংবাদিকদের বিস্তারিত জানান। তিনি বলেন, যতগুলো গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু আমাদের আছে সেগুলো সবই প্রধানমন্ত্রী তুলেছেন। এর সদুত্তর পাওয়া গেছে। উল্লেখযোগ্য যেমন ধরুন, আমাদের কনসার্ন হচ্ছে এনআরসি, আমাদের কনসার্ন হচ্ছে নদী।

এনআরসি নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মোদিকে উদ্ধৃত করে একে আব্দুল মোমেন বলেন, এগুলো নিয়ে কোনো চিন্তা করার কারণ নেই। উদ্বিগ্ন হওয়ার কোনো কারণ নেই এটা বলতে পারেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরো বলেন, মোদী বলেছেন আমাদের দুই দেশের যে সম্পর্ক এই ছোটখাট বিষয়গুলো আমরা সহজে টেক কেয়ার করবো, আমার লোকেরা কাজ করবে এবং দে উইল ফিক্স ইট। এগুলো নিয়ে, আমাদের দুই দেশের মধ্যে এত ভালো সম্পর্ক, এর পরিপ্রেক্ষিতে এই ছোটখাট অনেকগুলো ইস্যু আছে এগুলো নিয়ে আমাদের কোনো রকমের উদ্বেগের কারণ নেই।

বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে ইস্যুগুলো নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়নি জানিয়ে একে আব্দুল মোমেন বলেন, এখানে বিস্তারিত আলাপ হয়নি। কারণ আগামী ৫ তারিখে ওনার সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক আলোচনা রয়েছে। ওখানে আলোচনা হবে। এটা মোটামুটি একটা সোহার্দ্যপূর্ণ সাক্ষাৎ।

দুই নেতার মধ্যেকার আলোচনা বিষয়ে বলতে গিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, দুই দেশের সম্পর্ক খুবই উষ্ণ। দুই ভাই-বোনের মধ্যে কোনো ধরনের প্রটোকল দরকার হয় না।

গত ৩১ আগস্ট আসামের চূড়ান্ত জাতীয় নাগরিকপঞ্জি (এনআরসি) প্রকাশ করা হয়। চূড়ান্ত তালিকায় ৩ কোটি ৩০ লাখ আবেদনকারীদের মধ্যে নাগরিক হিসেবে তালিকাভুক্ত হয়েছেন ৩ কোটি ১১ লাখ ২১ হাজার ৪ জন। তালিকা থেকে বাদ পড়ে নাগরিকত্ব হারিয়েছেন প্রায় ১৯ লাখ ৬ হাজার ৬৫৭ জন মানুষ। বাদ পড়াদের অধিকাংশ বাংলাভাষী হিন্দু ও মুসলমান।