সৌদিতে শূলে চড়িয়ে ও মাথায় কেটে ১৩৪ জনকে মৃত্যুদণ্ড

রবিবার, সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: সৌদি আরবে চলতি বছর শূলে চড়িয়ে ও মাথা কেটে অন্তত ১৩৪ জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে। যাদের বেশিরভাগই সৌদি নাগরিক এবং যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের প্রতিদ্বন্দ্বী। এরমধ্যে ৩৭ জন রাজনৈতিক প্রতিদ্বন্দ্বী রয়েছে।

মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্তদের মধ্যে পাকিস্তান ও ইয়েমেনের নাগরিকও রয়েছেন। মূলত ভিন্নমতাবলম্বীদের দমন করতেই তাদের হত্যা করেছেন যুবরাজ।

মধ্যযুগীয় বর্বর পন্থায় এসব মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হওয়াদের মধ্যে ৬ জন শিশুও রয়েছে।

চলতি সপ্তাহে জেনেভায় জাতিসংঘ মানবাধিকার পরিষদের ৪২তম অধিবেশনে যুক্তরাজ্যভিত্তিক দাতব্য সংস্থা ‘ডেথ পেনাল্টি প্রজেক্ট’র উপস্থাপিত এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে এসেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, মৃত্যুদণ্ডের সংখ্যা ও হার কমিয়ে আনতে যুবরাজ মোহাম্মদের প্রতিশ্রুতি সত্ত্বেও মৃত্যুদণ্ড আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে ধর্মীয় রক্ষণশীল এই দেশটিতে।

মূলত, ক্ষমতা ধরে রাখতেই বিরোধীদের অবাধে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করছেন যুবরাজ।

বর্তমানে দেশটির বিভিন্ন আদালতে ৩ শিশুসহ ২৪ জন মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের তালিকায় আছেন। শিগগিরই যাদেন শূলে চড়িয়ে কিংবা মাথা কেটে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হবে।

এদিকে এমন অবাধ মৃত্যুদণ্ড ‍বন্ধ করতে ও অভিযুক্তদের ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে ব্রিটিশ পার্লামেন্টে আবেদন জানিয়েছেন আন্তর্জাতিক আদালতের আইনজীবী ব্যারনেস হেলেনা কেনেডি।