যে কারণে শেষ বেলায় অতিরিক্ত ক্রয় প্রেসার

রবিবার, সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৯

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: আজ সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসে বেলা ১২টা পর্যন্ত সূচকের মাত্র ৬ পয়েন্ট উত্থানে ঢিমে তালে চলে পুঁজিবাজার। কিন্তু এরপরেই যখন পুঁজিবাজারে ব্যাংকগুলোকে বিনিয়োগের নির্দেশ দিয়ে বাংলাদেশ ব্যাংক সার্কুলার জারি করলো তখনই সূচকের টানা উত্থান দেখা দিয়েছে। বেলা ১২টায় যেখানে মাত্র ৬৬টি কোম্পানির শেয়ার দর বৃদ্ধি পেয়েছে, সেখানে শেষ বেলায় ক্রয় প্রেসারে ১৮৫টির শেয়ার দর বৃদ্ধি পায়। পুঁজিবাজারের এই ক্রান্তি লগ্নে বাংলাদেশ ব্যাংকের এরকম সার্কুলার বাজারে তারল্য সংকট কাটিয়ে স্থিতিশীল করবে এমনটাই প্রত্যাশা করছেন বাজার সংশ্লিষ্টরা।

আজ সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের পাশাপাশি বেড়েছে বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ার দর। তবে টাকার অংকে লেনদেন আগের দিনের তুলনায় কিছুটা কমেছে। আজ দিন শেষে ডিএসইতে লেনদেন কমেছে ৮০ কোটি ২৩ লাখ ৭২ হাজার টাকা।

আজ দিন শেষে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ৬৪ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৪৯২০ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ২৬ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১১৫০ পয়েন্টে এবং ডিএসই ৩০ সূচক ৩০ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১৭৬৬ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩৫১টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১৮৫টির, কমেছে ১০৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৬০টির। আর দিন শেষে লেনদেন হয়েছে ৩০৪ কোটি ৭২ লাখ ৫৫ হাজার টাকা।

এর আগের কার্যদিবস দিন শেষে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স ৩২ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ৪৮৫৫ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ৭ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ১১২৩ পয়েন্টে এবং ডিএসই ৩০ সূচক ০.০৭ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ১৭৩৫ পয়েন্টে। আর ওইদিন লেনদেন হয়েছিল ৩৮৪ কোটি ৯৬ লাখ ২৭ হাজার টাকা। সে হিসেবে আজ ডিএসইতে লেনদেন কমেছে ৮০ কোটি ২৩ লাখ ৭২ হাজার টাকা।

এদিকে দিন শেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সাধারণ মূল্য সূচক সিএসইএক্স ১১৫ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৯ হাজার ৭৬ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ২৩২টি কোম্পানির ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১২২টির, কমেছে ৭৪টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৬টির। আর দিন শেষে লেনদেন হয়েছে ১৯ কোটি ৩৭ লাখ ৫৫ হাজার টাকা।