দুদিন আগেও হাস্যজ্জ্বল জ্যোতি এখন পুরো বিমর্ষ!

রবিবার, সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৯

বিনোদন ডেস্ক: ‘রাজলক্ষ্মী ও শ্রীকান্ত’ ছবির গান ও ট্রেলার হিট। ২০ সেপ্টেম্বর ছবিটি মুক্তি পাওয়ার কথা ছিলো। দুই বাংলার দর্শকরাও অপেক্ষা করেছিলেন কবে ছবিটি মুক্তি পাবে। কিন্তু ১৮ সেপ্টেম্বর (বুধবার) জানা যায়, এই ছবিটি কলকাতার কোনও হলেই মুক্তি পাচ্ছে না। সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে।

এই ছবিতে অভিনয় করেছেন বাংলাদেশের অভিনেত্রী জ্যোতিকা জ্যোতি। কলকাতার বাংলা ছবিতে এটাই তার প্রথম কাজ। ১৮ সেপ্টেম্বরের আগের পর্যন্ত পরিস্থিতি অন্যরকম ছিল। কিন্তু হলের তালিকা প্রকাশ পাওয়ার পর থেকেই রাজলক্ষ্মী ও শ্রীকান্ত ছবির টিমের মন খারাপ।

জ্যোতিকা জানান, “আমার কাল পর্যন্ত সবকিছু এক রকম ছিল। আর এখন অন্যরকম। আমার ইন্ডাস্ট্রি নিয়ে আর কোনও কথাই বলতে ইচ্ছে করছে না। এই ঘটনায় আমার ইউনিটের সবাই হতভম্ভ। আমাদের সবারই মতামত, গান এবং ট্রেলারের জনপ্রিয়তা দেখে কারা কী করেছে বলা যাচ্ছে না। ”

হলের তালিকা প্রকাশ হওয়ার আগে পর্যন্ত বুক মাই শো-য় দেখা যাচ্ছিল এই ছবি আসতে চলেছে। এই প্রসঙ্গে জ্যোতিকা বলেন, “যদি হল না পেত, তা আগে থেকেই বলত। কিন্তু আমাদের ছবি যে ২০ সেপ্টেম্বর আসতে চলেছে, তা বুক মাই শো, আইনক্স, পিভিআর-এর পেজে দেখা যাচ্ছিল। সেই স্ক্রিনশটও রয়েছে। আজ থেকে আর সেটা দেখা যাচ্ছে না। এ তো ইচ্ছে করেই করা হয়েছে। এটা একটি সিনেমার জন্য ক্ষতি। দুই বাংলা মিলে এটি একটি ভাল ছবি হতে চলেছে। তাই এই ছবির সঙ্গে এই ঘটনায় আদতে বাংলা ইন্ডাস্ট্রিরই ক্ষতি হচ্ছে।”

কিন্তু ঠিক কী কারণে এই ছবি কলকাতায় হলে মুক্তি পাচ্ছে না? এই প্রশ্নে জ্যোতিকা বলেন, “আমি জানি না। কিন্তু সাংবাদিক বন্ধুরা আমাদের সঙ্গ দিচ্ছেন। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়, প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা, ইন্ডিপেনডেন্ট চিত্রপরিচালকরা আমাদের হয়ে লেখালেখি করছেন। তাঁরা ছবির জন্যও রাস্তায় নামতেও রাজি। এই রকম অবস্থায় সিদ্ধান্ত বদল করতে রিলিজ কর্তৃপক্ষ রীতিমতো বাধ্য হচ্ছে। মাল্টিপ্লেক্সের কর্তৃপক্ষের সঙ্গে মিটিং হয়েছে। মুক্তির তারিখও পিছিয়ে হয়েছে ২৭ সেপ্টেম্বর। মানুষ গান ও ট্রেলার দেখেই ছবিটার জন্য অপেক্ষা করে রয়েছে। লড়ছে। আমি বিষয়টায় ব্যক্তিগত ভাবে দুঃখ পেয়েছি। কিন্তু এই ছবি আটকে দেওয়া ইন্ডাস্ট্রিরই ক্ষতি।”