স্মিথ সেরা, অ্যাশেজের আরো সেরা যারা

বুধবার, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৯

স্পোর্টস ডেস্ক : অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ডের ঐতিহ্যবাহী টেস্ট সিরিজ এই অ্যাশেজ। শেষ ম্যাচে হেরে সিরিজ ড্র করলেও অ্যাশেজ কাপ অস্ট্রেলিয়ার কাছে রয়েছে। বিশ্বের কাছে নিন্দিত থেকে খেলতে নেমে স্টিভেন স্মিথ এবারের অ্যাশেজে দুর্দান্ত একেকটা ইনিংস খেলে এই মুহূর্তে নন্দিত।

তাই তো ইংল্যান্ডের জনপ্রিয় পোর্টাল মেট্রোডটইউকে’র কাছে স্মিথই এখন অ্যাশেজের সেরা ক্রিকেটার।

২-২ ব্যাবধানে থেকে অ্যাশেজ শেষে সিরিজের সেরা একাদশ ঘোষণা করে মেট্রোডটইউকে। এই একাদশে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটার আছেন পাঁচজন এবং ইংল্যান্ডের ক্রিকেটার আছেন ছয়জন।

মেট্রোর প্রতিবেদনে এবারের অ্যাশেজের সেরা ক্রিকেটার, সবচেয়ে ব্যর্থ ক্রিকেটার ও সবচেয়ে বিস্ময়কর ক্রিকেটারও নির্বাচিত করা হয়েছে। সেই সঙ্গে পোর্টালটিতে উঠে এসেছে সেরা ইনিংসগুলোও।

অ্যাশেজে তিনটি সেঞ্চুরি (এর মধ্যে একটি ডাবল সেঞ্চুরি) ও তিনটি হাফ সেঞ্চুরিসহ ৭৭৪ রান করেছেন স্টিভ স্মিথ। অস্ট্রেলিয়ার ডানহাতি এই ব্যাটসম্যানকে অ্যাশেজের সেরা ক্রিকেটার হিসেবে বিবেচনা করা হয়েছে।

অন্যদিকে আরেক নিন্দিত ক্রিকেটার ডেভিড ওয়ার্নার এবারের অ্যাশেজের সবচেয়ে ব্যর্থ ক্রিকেটার হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন। ১০ ইনিংসে মাত্র ৯৫ রান করেছেন অজি ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার। এরমধ্যে তিনটি ইনিংসে ডাক এবং পাঁচটি ইনিংসে এক অঙ্কের রান করেন তিনি।

একইসঙ্গে এবারের অ্যাশেজের বিস্ময়কর ক্রিকেটার হিসেবে ধরা হয়েছে মার্নাস ল্যাবুশেনকে। হেডিংলি টেস্টে ১৩৫* রানের অবিস্মরণীয় ইনিংস খেলে দল জেতান বেন স্টোকস। ইংলিশ এই অলরাউন্ডারের ইনিংসটিকে অ্যাশেজের সেরা ইনিংস হিসেবে বিবেচনা করা হয়েছে। সেই ম্যাচ জেতার পর অভিনব কায়দায় উল্লাস করেন স্টোকস। মুহূর্তটিকে অ্যাশেজের সেরা মুহূর্ত বলা হয়েছে।

ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে অজি পেসার প্যাট কামিন্স ৪৩ রান খরচায় চার উইকেট নিয়েছেন। বল হাতে আগুন ঝরিয়ে ওই টেস্টে অস্ট্রেলিয়াকে টেস্ট জেতাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন প্যাট কামিন্স। এই বোলিং ফিগারকে অ্যাশেজের সেরা বলে বিবেচনা করা হয়েছে।

এ ছাড়া স্মিথের লুফে নেয়া সেই অসাধারণ ক্যাচটিকে সেরা বিবেচনা করা হয়েছে। সর্বশেষ ওভাল টেস্টে ছয়টি ক্যাচ নিয়েছেন স্মিথ। শেষ ক্যাচটি নিয়েছেন ক্রিস ওকসকে ফেরানোর সময়।

অ্যাশেজের সেরা একাদশ: ররি বার্নস, জো ডেনলি, জো রুট, স্টিভ স্মিথ, মার্নাস ল্যাবুশেন, বেন স্টোকস, টিম পেইন, প্যাট কামিন্স, জফরা আর্চার, জশ হ্যাজেলউড ও স্টুয়ার্ট ব্রড।