ব্রুনেইয়ে বাংলাদেশ দূতাবাসের মধ্যে প্রবাসীকে মারধর (ভিডিও)

বুধবার, আগস্ট ২৮, ২০১৯

ঢাকা : ব্রুনেইয়ে বাংলাদেশ হাইকমিশনের লেবার উইংয়ের কর্মীদের বিরুদ্ধে দূতাবাসের মধ্যেই নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনার কয়েকটি ভিডিও ইতোমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন জানান, ঘটনাটি তারও নজরে এসেছে।

তিনি বলেন, কিছু তথ্য আমার কাছে এসেছে, আমি তা প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়ে দিয়েছি (ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য)।

ব্রুনেইয়ে বাংলাদেশের হাই কমিশনার অবসরপ্রাপ্ত এয়ার ভাইস মার্শাল মাহমুদ হোসেন বলেন, “আপনি কী করে জানলেন, তারা (মারধরকারীরা) হাই কমিশনের কর্মী?” এই বলেই ফোন কেটে দেন তিনি। পরে অনেকবার ফোন করা হলেও তিনি আর সাড়া দেননি।

ব্রুনেই দূতাবাসে নির্যাতনের সর্বশেষ যে ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে, তাতে দেখা যায়, প্রবাসী এক কর্মী দূতাবাস কর্মকর্তার টেবিলের পাশে দাঁড়িয়ে রয়েছেন, ওই কক্ষে আরও পাঁচ-ছয়জন রয়েছেন, যারা একজন একজন করে এসে কর্মকর্তার পাশে দাঁড়ানো প্রবাসী শ্রমিককে কিল-ঘুষি এমনকি লাথিও মারছেন।

ব্রুনাই অবস্থিত বাংলাদেশ এমবাসীতে নিযুক্ত লেবার অফিসারের আচরণ দেখুন। কত অমানবিক ও ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণ করে। অপরাধ বা বাটপারি কিংবা কাহারো সাথে প্রতারণা যদি উক্ত ব্যাক্তি করেও থাকে, তার বিরুদ্ধে কি আইনগত ব্যাবস্থা নিতে পারতেন না? জরিমানা করে অর্থ আদায়ের ব্যাবস্থা সহ অন্যান্য শাস্তি মুলক ব্যাবস্থা নিতে পারতেন। কোন ক্ষমতাবলে এই অফিসার তার নিজ অফিসের অভ্যান্তরে অফিসিয়ালি গনপিটুনীর ব্যাবস্থা করলেন? এটা কত টা যৌক্তিক? কে দিয়েছে তাকে এই পাওয়ার? কিভাবে সে, এম্বাসীর মধ্যে ধরে এনে মানুষ পিটায়?? আজ একভাই জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষনে হাসপাতালে সংজ্ঞাহীন। সে নিজেই ওখানে কোর্ট বসিয়ে শালিশ দরবার করে, আর মারধর করার আয়োজন রেখেছে নিজস্ব ব্যাবস্থাপনায় ! তার বিরুদ্ধে নিয়মিত তদন্ত করে, শাস্তি মূলক ব্যাবস্থা নিতে যথাযথ কর্তৃপক্ষের নিকট আকুল আবেদন করছে, ব্রুনাই প্রবাসী ভাইয়েরা ব্রুনাই সাধারন প্রবাসীরা, কর্তৃপক্ষের সু দৃস্টি কামনা করছে ও এই অফিসারের বিরুদ্ধে তদন্ত পুর্বক ব্যাবস্থা গ্রহনের আবেদন করছে।

Posted by Nurul Islam Dablu on Friday, August 23, 2019