সুরভী-৮ লঞ্চ থেকে নারায়নগঞ্জের গার্মেন্টস কর্মীর মরদেহ উদ্ধার

শনিবার, জুলাই ২০, ২০১৯

বরিশাল : বরিশাল নদী বন্দরে নোঙ্গর করা এমভি সুরভী-৮ লঞ্চের নীচতলার স্টাফ কেবিন থেকে নারায়নগঞ্জের এক গার্মেন্টস কর্মীর মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

সে নারায়নগঞ্জ জেলার সিদ্ধিরগঞ্জ থানার আদমজী নগরের আদমজী ইপিজেড এর অনন্ত অ্যাপেয়ারেল্স লিমিটেড এর একজন অপারেটর ও বরিশাল জেলার বাকেরগঞ্জ উপজেলার পাদ্রিশিবপুরের বড়পুইয়াউটা এলাকার বজলু বেপারীর মেয়ে আখি আক্তার (২৯)। বাবা বজলু বেপারী জানান, আখির সাথে আদমজী নগরের মিজান নামের এক ছেলের সাথে বিয়ে হয়। তাদের সংসারে ২ বছরের এক কন্যা সন্তানও রয়েছে।

তবে উভয়ের সম্পর্কের টানা-পোড়ানের কারণে সেই সন্তান নানা বাড়ি বাকেরগঞ্জেই থাকেন। তিনি জানান, গ্রামের বাড়িতে ভোটার কার্ডের কাজের জন্য আসার কথা ছিলো মেয়ে আখি আক্তারের।

শুক্রবার দিবাগত রাতে সুরভী- ৮ লঞ্চে করে ঢাকার সদরঘাট থেকে আখি বরিশালের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেন। ওইসময় সে একাই থাকার বিষয়টি তিনি জানতেন। লঞ্চে ওঠার সময় একবার কথা হলেও পরবর্তীতে আর কথা হয়নি। সকালে সে যথাসময়ে বাড়িতে না পৌছালে এবং মোবাইল বন্ধ পাওয়া গেলে আখির সন্ধানে নামেন স্বজনরা। এরপর বরিশাল লঞ্চঘাটে এসে খোজ নিয়ে জানতে পারেন লঞ্চের স্টাফ কেবিন থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সুরভী-৮ লঞ্চের সুপারভাইজার মেজবাহ উদ্দিন জানান, শুক্রবার রাতে ঢাকা থেকে বরিশালের উদ্দেশ্যে সুরভী-৮ লঞ্চের নীচতলার স্টাফ (লস্কর) কেবিনে ওঠে আখি আক্তার।

এসময় তার সঙ্গি ছিলো এক যুবক। রাতে ওই যুবক দুজনের জন দুটি ডেক টিকিটও সংগ্রহ করেন। কিন্তু শনিবার সকালে লঞ্চ পৌছালে স্টাফরা ওই কেবিনে গিয়ে আখিকে মৃত পরে থাকতে দেখেন। পাশাপাশি তার সঙ্গী ওই যুবকের সন্ধান লঞ্চে না পেয়ে বিষয়টি থানা পুলিশকে অবহিত করা হয়।

পরে থানা পুলিশ এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে এবং স্বজনদের খবর দিলে তারা এসে মরদেহ সনাক্ত করে। এ বিষয়ে কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরুল ইসলাম বলেন, প্রাথমিকভাবে সুরতহাল প্রতিবেদন করতে গিয়ে আখি আক্তার নামে ওই গার্মেন্টস কর্মীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে আলমত পাওয়া গেছে। তবে ধর্ষনের কোন আলামত পাওয়া না গেলেও মেডিকেল পরীক্ষা ও ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনে এ বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যাবে। তিনি বলেন, আখি আক্তারের সাথে থাকা অজ্ঞাত পরিচয়ের যুবকের বিষয়ে খোজ-খবর নেয়া হচ্ছে, লঞ্চের সিসি টিভি ক্যামেরার ফুটেজ সরবরাহ করা হয়েছে।

আশাকরি দ্রুত ওই যুবকের আইনের আওতায় আনা যাবে। পাশাপাশি তাকে গ্রেফতার করা হলেই আখির মৃত্যুর রহস্য উম্মোচন হবে বলে আশা প্রকাশ করেণ ওসি। এদিকে বেলা পৌনে ১১টার দি‌কে পু‌লিশ আখি আক্তারের মরদেহ উদ্ধার করে শেবাচিম হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেছে।