বগুড়ায় জিপিএ-৫ না পাওয়ায় গলায় ফাঁস দিয়ে ছাত্রীর আত্মহত্যা

বৃহস্পতিবার, জুলাই ১৮, ২০১৯

খালিদ হাসান, বগুড়া প্রতিনিধি : উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় জিপিএ-৫ না পাওয়ায় ফ্যানের সঙ্গে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে তামিমা ইসলাম (ফেনি) নামের এক শিক্ষার্থী। বুধবার দুপুর পৌণে ২টার দিকে বগুড়া শহরের ঠনঠনিয়া তেতুলতলা এলাকায় মোহসিন আলীর ভাড়া বাসায় ওই ঘটনাটি ঘটে।

নিহত ফেনী নওগা জেলার রানীনগরের ক্ষুদ্রবেলধারী গ্রামের ফরিদুল ইসলামের মেয়ে।

জানা যায়, গত ২মাস আগে মেয়েকে মেডিকেলে ভর্তি করানোর জন্য কোচিং করাতে এই বাসা ভাড়া নেয় ফরিদুল। নিহত ফেনি রংপুর ক্যান্টনমেন্ট স্কুল থেকে এবার এইচএসসি পরীক্ষা দিয়েছিলো। বুধবার পরীক্ষার রেজাল্ট প্রকাশ হবার পর ৪.৭ পায় ফেনি । তার ধারণা ছিল সে এ প্লাস পাবে।

তার চেয়ে কম মেধাবী অনেকে ছাত্রীই এ প্লাস পেয়েছে বলে ফেনির মন খুবই খারাপ ছিল। বারবার সে একই কথা বলছিলো।তার মায়ের সাথে বাসায় কান্নাকাটি করে ও বারবার বলে এজীবন আমি আর রাখবো না।

কান্নাকাটির এপর্যায়ে সে তার রুমে প্রবেশ করে এবং দরজা ভেতর থেকে বন্ধ করে দেয়। তারপর সাথে সাথে ফ্যানের সঙ্গে ফাঁস নেয় ফেনি। ঘটনাটির সঙ্গে সঙ্গে মেয়েটির মা চিৎকার দিলে বাসা ওয়ালা এবং বাড়ির আশপাশের লোকজন ঘটনাস্থলে ছুটে এসে ঘরের দরজা ভেঙ্গে তাকে উদ্ধার করে মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

বগুড়া সদর থানার ওসি এসএম বদিউজ্জামান আত্মহত্যার ঘটনাটি নিশ্চিত করেছেন।