তথ্য সংগ্রহে বাদপড়ারা ভোটার হবেন যেভাবে

বুধবার, জুলাই ১৭, ২০১৯

ঢাকা মহানগরীতে চলমান ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রম থেকে বাদপড়ারা নিবন্ধন কেন্দ্রে গিয়ে নির্ধারিত ফরম পূরণ করে ভোটার হতে পারবেন। নির্বাচন কমিশনের (ইসি) যুগ্ম-সচিব এসএম আসাদুজ্জামান মঙ্গলবার (১৬ জুলাই)  এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, তথ্য সংগ্রহ পর্বে ভোটার হওয়ার যোগ্য কেউ বাদ পড়লে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে বাসার যে কোনো ইউটিলিটি (গ্যাস/পানি/বিদ্যুৎ) বিলের কপি, মা-বাবার জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি, জন্ম নিবন্ধন সনদের কপিসহ কেন্দ্রে যেতে হবে। এরপর নিবন্ধন কেন্দ্রে ভোটার তথ্য ফরম পূরণ করে ১০ আঙুলের ছাপ ও চোখের আইরিশের স্ক্যান করা ছবি দিতে হবে। এভাবে তথ্য সংগ্রহে বাদপড়ারা ভোটার হতে পারবেন।

জানা যায়, গত ৩ জুলাই থেকে ঢাকা মহানগরীর (ওয়ারী, সুত্রাপুর ও ডেমরা থানা বাদে) ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রমের অংশ হিসেবে নাগরিকদের তথ্য সংগ্রহের কাজ শুরু করে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। তবে নানা মহল থেকে অভিযোগ উঠেছে, ইসির দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মীরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে নতুন ভোটারদের তথ্য সংগ্রহ করছেন না। এর ফলে ভোটার হওয়ার যোগ্য অনেকেই তথ্য সংগ্রহ পর্বে বাদ পড়ে যাচ্ছেন। যদিও আগামী ২৩ জুলাই পর্যন্ত তথ্য সংগ্রহের কার্যক্রম চলবে।

এমন অবস্থায়, ইসির যুগ্ম-সচিব এসএম আসাদুজ্জামানের সঙ্গে আলাপ করলে তিনি জানান, চলমান তথ্য সংগ্রহ থেকে কেউ কোনো কারণে যদি বাদ পড়ে থাকেন তাহলে খুব উদ্বিঘ্ন হওয়ার প্রয়োজন নেই। নতুন ভোটারদের আঙুলের ছাপ ও চোখের আইরিশের স্ক্যান করা ছবি নেয়ার জন্য ২৯ জুলাই থেকে পর্যায়ক্রমে এলাকায় এলাকায় নিবন্ধন কেন্দ্র খোলা হবে। তথ্য সংগ্রহ পর্বে কেউ বাদ পড়ে থাকলে তারা এসব নিবন্ধন কেন্দ্রে গিয়ে তথ্য ফরম পূরণ করে ভোটার তালিকায় নাম তুলতে পারবেন।

তিনি আরও জানান, এর বাইরে থানা নির্বাচন অফিসে গিয়ে সারা বছরই ভোটার হওয়ার সুযোগ রয়েছে। ঢাকার কোনো এলাকার ভোটাররা কোথায় নিবন্ধন সম্পন্ন করবেন এর তালিকা ঠিক করেছে কমিশন।