গ্রামীন ব্যাংকের দুর্নীতিবাজ দুই কর্মকর্তার সাজা

বুধবার, জুলাই ১৭, ২০১৯

ঢাকা : গ্রামীণ ব্যাংকের দুর্নীতিবাজ দুই কর্মকর্তাকে সাজা দিয়েছে আদালত। ১৭ জুলাই বুধবার জেলা জজ মহসিনুল হক বিচারাধীন বিভাগীয় স্পেশাল জজ আদালত দুইজনের প্রত্যেককে ৫ বছর করে কারাদন্ডসহ ৯ লাখ টাকা করে অর্থদণ্ড দেন । দন্ডপ্রাপ্ত আসামীরা হলো গ্রামীন ব্যাংকের রায়পাশা শাখার সাবেক শাখা ব্যবস্থাপক দেলোয়ার হাসান ও সাবেক অফিসার শাহ আলম।

আদালতের বেঞ্চসহকারি হারুন অর রশিদ জানান,গ্রামীণ ব্যাংক রায়পাশা শাখায় কর্মরত থাকাকালীন তারা ২০১০ সালের ৭ ফেব্রুয়ারি হতে ২০১১ সালের ৭ জুলাই পর্যন্ত ১৩ জন গ্রাহকের নিকট থেকে টাকা উত্তোলন করে ব্যাংকে জমা না দিয়ে ৫ লাখ ৯০ হাজার টাকা আত্নসাত করে।

এ অভিযোগে ২০১২ সালের ৩ অক্টোবর দুর্নীতি দমন কমিশনের সহকারি পরিচালক ওয়াজেদ আলী গাজি তাদের বিরুদ্ধে কোতয়ালী মডেল থানায় মামলা দায়ের করে।তদন্ত শেষে ২০১৫ সালের ১৪ অক্টোবর দুদকের উপ সহকারী পরিচালক বাহাদুর আলম সত্যতা পেয়ে তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ পত্র জমা দেন।

রাষ্ট্রপক্ষ ১০ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যদানে সক্ষম হয়।সাক্ষ্য প্রমানে দোষী সাব্যস্ত হলে দেলোয়ার ও শাহআলমকে সাজা দেয় আদালত। রায়ের সময় তারা পলাতক থাকায় তাদের বিরুদ্ধে সাজা পরোয়ানা ও গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারী করা হয়। অর্থদন্ডের টাকা আদায়ের জন্য আসামীদের স্থাবর অস্থাবর সম্পত্তি বিক্রি করে রাষ্ট্রীয় কোষাগারে জমা দেয়ার জন্য বাগেরহাটের জেলা প্রশাসককে আদেশ দেয়া হয়।