‘ধর্ষক’কে পালাতে সাহায্য করেন মা, চেয়ারম্যান দিলেন পুলিশে

শনিবার, জুলাই ১৩, ২০১৯

কুমিল্লা : কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলায় কিশোরীকে (১৪) ধর্ষণের অভিযোগে রাকিব উদ্দিন (২০) নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গতকাল শুক্রবার রাত ১০টার দিকে উপজেলার কেরণখাল এলাকা থেকে রাকিবকে গ্রেপ্তার করা হয়।

রাকিব চান্দিনা উপজেলার কেরণখাল ইউনিয়নের রামেশ্বর গ্রামের বাসিন্দা।

মামলার বিবরণ দিয়ে চান্দিনা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আহাদ জানান, গত ৫ জুলাই কিশোরীর মা দিনমজুরের কাজে বাইরে ছিলেন। দুপুরে বাড়িতে কিশোরীকে একা পেয়ে ধর্ষণ করেন প্রতিবেশী রাকিব। বিকেলে মা বাড়িতে ফিরলে কিশোরী ঘটনাটি জানায়।

পরে কিশোরীর মামা স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিসহ রাকিবের মা ও নানাকে ঘটনাটি জানান। রাকিবের মা ও নানা বিচারের আশ্বাস দিলেও রাবিককে পালানোর সহযোগিতা করে দূরে পাঠিয়ে দেন বলে মামলায় অভিযোগ করা হয়।

গত মঙ্গলবার কিশোরীর মামা বাদী হয়ে চান্দিনা থানায় নারী ও নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। ধর্ষণের ঘটনায় রাকিবকে পালানোর সহযোগিতার অভিযোগে তাঁর মা ও নানাকেও আসামি করা হয়।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে গতকাল শুক্রবার রাত ১০টার দিকে কেরণখাল ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান হারুনুর রশিদ কৌশলে রাকিবকে ইউনিয়ন পরিষদে এনে পুলিশের হাতে তুলে দেন।