শ্বশুরপক্ষের ‘সম্মান’ না পেয়ে জামাতার আত্মহত্যা

সোমবার, জুন ২৪, ২০১৯

রাজশাহী : উপযুক্ত সম্মান দিয়ে শ্বশুরবাড়ির সদস্যরা নিমন্ত্রণ করেনি, এমন অভিযোগ এনে ক্ষোভে রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার এক ব্যক্তির আত্মহত্যার খবর পাওয়া গেছে। রোববার সন্ধ্যার এ ঘটনায় সোমবার একটা অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।

মারা যাওয়া ব্যক্তির নাম আলাউদ্দিন (৪১)। তিনি উপজেলার দ্বীপপুর ইউনিয়নের লাউবাড়িয়া গ্রামের বাসিন্দা।

পুলিশ ও আত্মহননকারী ব্যক্তির পরিবার সূত্রে জানা যায়, এলাকার রীতি অনুসারে প্রতিবছর আমের মৌসুমে জামাতাদের নিমন্ত্রণ করে আম ও চিড়া খাওয়ানো হয়। এই সময় উপহার হিসেবে জামাতাদের নতুন পোশাকও দেওয়া হয়।

যুগ যুগ ধরে বাগমারা এলাকায় এই প্রথা চলে আসছে। গত রোববার আলাউদ্দিনের শ্বশুরবাড়িতে জামাতাদের আম ও চিড়া খাওয়ানোর আয়োজন করা হয়। এর আগে আলাউদ্দিনকেও নিমন্ত্রণ জানান শ্বশুরবাড়ির লোকজন। তবে আলাউদ্দিন অভিযোগ করেন, শ্বশুরবাড়ির সদস্যরা অন্য জামাতাদের যেভাবে দাওয়াত দিয়েছেন, ততটা সম্মানের সঙ্গে তাঁকে দাওয়াত দেননি।

এ নিয়ে স্ত্রী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজনের সঙ্গে মনোমালিন্যের হয় তাঁর। এরপর ক্ষোভে রোববার সন্ধ্যায় তিনি বিষপান করেন। এতে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়লে পরিবারের লোকজন বিষপানের বিষয়টা বুঝতে পারেন। এরপর পরিবারের সদস্যরা আলাউদ্দিনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে রাতে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে তিনি মারা যান।

বাগমারা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) নিয়ামুল হোসেন বলেন, এ ঘটনায় কোনো অভিযোগ না থাকায় লাশ দাফনের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

একই গ্রামের বাসিন্দা স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য গিয়াস উদ্দিন বলেন, তুচ্ছ ঘটনায় এত বড় সিদ্ধান্ত নেওয়াটা দুঃখজনক। আলাউদ্দিনের মৃত্যুতে পরিবারের সদস্যরা অসহায় হয়ে পড়ল। তবে আলাউদ্দিনের শ্বশুরবাড়ির লোকজন এই বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে চাননি।