যৌতুক লোভী স্বামীর ৩ বছর কারাদণ্ড

বৃহস্পতিবার, জুন ২০, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক : যৌতুকের দাবীতে স্ত্রীকে নির্যাতনের অভিযোগে করা মামলায় লোভী স্বামীকে ৩ বছরের কারাদন্ড দিয়েছে আদালত।

এছাড়াও ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ৩ মাসের দন্ড দেয়া হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার এ দন্ড দেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. আবু আজাদ শামীম।

রায় ঘোষনার সময় কাজী আশ্রাব পলাতক ছিলো। সে নলছিটি সরমহল গ্রামের বাসিন্দা আইয়ুব আলী কাজির ছেলে। আদালত সুত্র জানায়, আগের বিয়ের কথা গোপন রেখে ২০১১ সালের ১৪ এপ্রিল বাকেরগঞ্জ রঙ্গশ্রী শ্যামপুর গ্রামের বাসিন্দা মাহিনুর বেগমকে বিয়ে করে আশ্রাব। বিয়ের কিছুদিন পরই মাহিনুরের বাবার কাছে থেকে মোটরসাইকেল কেনার জন্য ৮০ হাজার টাকা নেয় আশ্রাব। এতে লোভ বৃদ্ধি পেলে পুনরায় জমি বিক্রি করে ৩ লাখ যৌতুক এনে দেয়ার দাবী জানায় সে। এতে অস্বীকার করলে মাহিনুরকে নির্যাতন শুরু করে।

২০১৩ সালের ৫ অক্টোবর পুনরায় যৌতুকের দাবী জানায় আশ্রাব। না দেয়ায় মাহিনুরকে মারধর করে তাড়িয়ে দেয়। ১৮ অক্টোবর মিমাংসার চেষ্টা করলে যৌতুক না দিলে অনত্র বিয়ের হুমকি দেয় সে। এ ঘটনায় মাহিনুর বাদী হয়ে ২৪ অক্টোবর আদালতে মামলা করে।

মামলায় ২০১৪ সালের ২৭ অক্টোবর আশ্রাবের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে আদালত। পরে ৯ জন সাক্ষির মধ্যে ৬ জনের সাক্ষ্য গ্রহন শেষে বিচারক ওই দন্ড দেন।