উসকানিমূলক বিজ্ঞাপনের লড়াই, সানিয়ার ক্ষোভ

বৃহস্পতিবার, জুন ১৩, ২০১৯

ঢাকা: ভারত-পাকিস্তান যেন মুদ্রার এপাশ-ওপাশ। কখনো তাদের এক দেখা সত্যি অসম্ভব কিছু! দুই দেশের এই লড়াই দেখা যায় সর্বক্ষেত্রে। খেলার মাঠেও এই দুই দল চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী। মাঠেও মাঠের বাইরে লক্ষ্য করা যায় এর রেশ।

আগামী ১৬ জুন মুখোমুখি হবে দল দুটো। আর এ ম্যাচকে ঘিরে এরই মধ্যে দুই দেশের সমর্থকদের মধ্যে শুরু হয়ে গেছে কথার লড়াই। পিছিয়ে নেই দেশ দুটোর গণমাধ্যমগুলোও।

সম্প্রতি ম্যাচকে কেন্দ্র করে একটি বিজ্ঞাপন তৈরি করে পাকিস্তানকে অপমান করেছে ভারতীয় টেলিভিশন স্টার স্পোর্টস। যেখানে বাংলাদেশকে পাকিস্তানের ভাই বলে উল্লেখ করা হয়েছে আর বলা হয়েছে পাকিস্তান ভারতের সন্তান।

বিজ্ঞাপনটি নিয়ে এরই মধ্যে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। এমতাবস্থায় দুই দেশের ক্রিকেট সমর্থক ব্যবহারে বিরক্তি প্রকাশ করেছেন ভারতীয় টেনিস তারকা সানিয়া মির্জা।

সানিয়া মির্জা ভারতীয় কন্যা হলেও তিনি পাকিস্তানি বউ। আর তাই সমালোচনা করে দুই দেশেরই নেটিজেনদের তোপের মুখে পড়েছে সানিয়া। তাকে নিয়ে ট্রোলও করা হয়েছে স্যোশাল মিডিয়ায়।

এদিকে ভারতের বাবা-ছেলের বিজ্ঞাপনের পর ভারতকে জবাব দিতে পাকিস্তানের জাজ টিভি অপর আরেকটি বিজ্ঞাপন বের করেছে। যেখানে ভারতের এআইএফ পাইলট অভিনন্দনের মতো একজন লোককে অভিনয় করতে দেখা যায়।

তাঁর কাছে জানতে চাওয়া হয় ‘টসে কি জিতবে?’, ‘দলে কে কে খেলবে?’। তবে এসব উত্তর দিতে পারেননি ওই মডেল। তিনি বলেন, দুঃখিত আমি উত্তর দিতে পারছি না।

ভারতীয় পাইলট অভিনন্দন বর্তমান পাকিস্তানের হাতে আটক হওয়ার পর তাকে জেরা করার যে ভিডিও প্রকাশ করা হয়েছিল। সেটাকে অনুকরণ করেই বিজ্ঞাপনটি তৈরি করা হয়েছে। যার শেষ দিকে এই প্রশ্নও করা হয়, চা কেমন হয়েছে? জবাবে ওই মডেল বলেন, চা ফ্যান্টাসটিক।

বিজ্ঞাপনটি নিয়ে অনলাইনে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা গিয়েছে।

জোড়া বিজ্ঞাপনের পরিপ্রেক্ষিতেই নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে সানিয়া লেখেন, `সীমান্তের দুই পারেই কু বিজ্ঞাপনের প্রদর্শন। উত্তেজনা বাড়ানো এবং মার্কেটিংয়ের জন্য কুরুচিকর পন্থা নেয়ার দরকার নেই। এ ম্যাচ ঘিরে ইতিমধ্যে যথেষ্ট আগ্রহ ও উৎসাহ তৈরি হয়েছে। এটি কেবল একটা ক্রিকেট ম্যাচ। যারা একে এর বাইরে দেখতে চান, তাদের জন্য সমবেদনা রইল। স্বভাবতই তার টুইটটি প্রশংসিত-নিন্দিত দুই-ই হচ্ছে।’