পিরানহা ভর্তি পুকুরে ফেলে জেনারেলকে মৃত্যুদণ্ড দিলেন কিম

সোমবার, জুন ১০, ২০১৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : সবসময় খবরের মধ্যেই থাকতে ভালোবাসেন উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রপতি কিম জং উন। এবার ফের খবরের শিরোনামে উঠে এলেন কিম।

সম্প্রতি এক অদ্ভূত উপায়ে তার সেনাবাহিনীর এক জেনারেলের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছেন কিম। দোষী সাব্যস্ত ওই জেনারেলকে ঠেলে ফেলে দিয়েছেন পিরানহা মাছ ভর্তি এক পুকুরে। অ্যামাজনের ভয়ঙ্কর ওই মাছ ছিঁড়ে খেয়েছে ওই হতভাগ্য জেনারেলকে। এমনটাই খবর দিয়েছে দ্যা সান।

এঘটনায় আর্ন্তজাতিক গণমাধ্যমে আলোচিত হলেন কিম।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য সান জানিয়েছে, দোষী সাব্যস্ত হওয়া এক জেনারেলকে পিরানহা মাছ ভর্তি এক পুকুরে ঠেলে ফেলে দেন কিম নিজেই। আর জীবন্ত সেই জেনারেলকে লুফে নেয় অ্যামাজনের ভয়ঙ্কর মাংসাশী মাছগুলো। আর ওই মাছ ছিঁড়ে খায় হতভাগ্য জেনারেলকে।

সান আরও জানায়, কিমের রিংয়সিয়ং প্রাসাদের একটি পুকুর রয়েছে, যেখানে ব্রাজিল থেকে আমদানি করা কয়েকশো পিরানহা পালিত হয়। আর সেই পুকুরেই ফেলা হয় জেনারেলকে। তার আগে জেনারেলের দেহের বিভিন্ন অংশে ছুরি দিয়ে কাটা হয় যেন কিছুটা রক্ত বের হয়ে আসে। তারপর আহত জেনারেলকে সেই পুকুরে ছুঁড়ে ফেলা হয়। রক্তের ঘ্রাণ পেয়ে মুহূর্তের মধ্যে অসংখ্য পিরানহা ছুটে আসে।

কি কারণে পিরানহার খাবারে পরিণত হতে হল সেই জেনারেলকে?

সান জানিয়েছে, গুরুতর অভিযোগ ছিল ওই জেনারেলের বিরুদ্ধে। কিমের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে তাকে গদিচ্যুত করার চেষ্টা করছিলেন তিনি।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি আরও এক হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় আলোচনায় ছিলেন কিম জং উন। কিমের নির্দেশে এক শীর্ষ কূটনীতিকসহ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের চার কর্মকর্তাকে ফায়ারিং স্কোয়াডে হত্যা করা হয়।

গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে তাদের হত্যা করা হয় বলে জানিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ার সংবাদপত্র চোসান ইলবো।