বান্দরবানে অপহরণের ৩ দিন পর আ’লীগ নেতার লাশ উদ্ধার

শনিবার, মে ২৫, ২০১৯

বান্দরবান : বান্দরবানে অপহৃত আওয়ামী লীগ নেতা চ থোয়াই মং মার্মার অর্ধগলিত লাশ পাওয়া গেছে। আজ শনিবার দুপুরে সদর উপজেলার রাজবিলা ইউনিয়নের জর্দান পাড়া এলাকার গহীন জঙ্গল থেকে অপহরণের ৩ দিন পর তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, আজ দুপুরে রাজবিলা ইউনিয়নের জর্দান পাড়া এলাকার গহীন জঙ্গলে একটি লাশ দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ ও আত্মীয় স্বজন ঘটনাস্থলে গিয়ে সনাক্ত করে এটি অপহৃত আওয়ামী লীগ নেতা চ থোয়াই মং মার্মার লাশ। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বান্দরবান সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বান্দরবান সদর থানার অফিসার্স ইনচার্জ শহিদুল ইসলাম চৌধুরী জানান, অপহৃত চ থোয়াই মং মার্মার লাশ পাওয়া গেছে। জর্দান পাড়ার জঙ্গলে স্থানীয়রা একটি লাশ দেখতে পেয়ে আমাদেরকে খবর দিলে ঘটনাস্থলে যাই। সেখানে তার আত্মীয় স্বজন দলীয় নেতাকর্মীরাও ছিল। তারা সবাই লাশটি দেখে চিনতে পেরেছে।

উল্লেখ্য, গত বুধবার রাত ৯টার সময় কয়েকজন অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী বান্দরবান পৌর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সাবেক পৌর কমিশনার চ থোয়াই মং মার্মাকে তার খামার বাড়ি থেকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। এর প্রতিবাদে শহরে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। এ ঘটনায় আওয়ামী লীগ জনসংহতি সমিতি জেএসএস কে দায়ী করে। এর আগে গত ১৭ মে কুহালং ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের আরেক কর্মীকে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা।

এর আগে গত ৯ মে ওই এলাকায় সন্ত্রাসীরা জনসংহতি সমিতির সমর্থক জয় মনি তঞ্চঙ্গ্যাকে গুলি করে হত্যা করে। এর দু’দিন আগে গত ৭ মে সন্ত্রাসীরা জনসংহতি সমিতির কর্মী বিনয় তঞ্চঙ্গ্যাকে গুলি করে হত্যা করে। এছাড়া অপহরণ করা হয় পুরাধন তংচঙ্গা নামের অপর এক কর্মীকে। এখনো তার কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি।