ধামরাই উপজেলায় ১৮ বছর পর ছাত্রলীগের কমিটি

বৃহস্পতিবার, মে ২৩, ২০১৯

জাহিন সিংহ, ধামরাই থেকে : নানা প্রতিবন্ধকতায় দীর্ঘ আঠারো বছর ঢাকার থামরাইয়ে ছিলনা ছাত্রলীগের কমিটি। দলীয় বিভিন্ন কর্মসূচী থাকলেও স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতাদের অভ্যন্তরীণ কোন্দলের কারণে কমিটি হয়নি ছাত্রলীগের।

বুধবার রাতে জেলা ছাত্রলীগ সাভাপতি সাইদুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক মনিরুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে মিদুল মাহমুদ সাদ্দামকে আহ্বায়ক ও রবিউল আওয়াল রুবেলকে যুগ্ম আহ্বায়ক করে ঘোষণা করা হয়েছে ১৪ সদস্যের একটি আহ্বায়ক কমিটি। পাশাপাশি পূর্ণাঙ্গ কমিটির জন্য আগামী তিন মাসের মধ্যে সম্মেলনের আয়োজন করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

ছাত্রলীগের ঢাকা জেলা উত্তরের সাধারণ সম্পাদক মনিরুল ইসলাম জানান, নতুন আহবায়ক কমিটির অনুমোদন দেওয়া হয়। এছাড়াও আগের সব কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়েছে।

নেতাকর্মীরা জানান, ১৯৯৮ সালে ছাত্রলীগের গঠিত কমিটি ২০০১ সাল পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করে। এর পরে ২০১১ সালে লায়ন পারভেজকে আহ্বায়ক ও সারোয়ার মাহবুব তুষারকে যুগ্ম আহ্বায়ক করে ধামরাই উপজেলা ছাত্রলীগকে তিন মাসের জন্য স্বঘোষিত কমিটি দেওয়া হলেও ওই কমিটি পূর্ণাঙ্গ হয়নি।

১৮ বছর পর বুধবার ছাত্রলীগের ঢাকা জেলা উত্তরের সভাপতি সাইদুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক মনিরুল ইসলামের স্বাক্ষরিত প্যাডে ১৪ জনের নাম উল্লেখ করে আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে। একইসঙ্গে আগামী তিন মাসের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কমিটি করার জন্য সম্মেলনের আয়োজন করতে বলা হয়েছে।

এ ব্যাপারে ঢাকা জেলা উত্তর ছাত্রলীগের সভাপতি সাইদুল ইসলাম কমিটির বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘ধামরাই উপজেলায় দীর্ঘদিন ধরে ছাত্রলীগের কোনও কমিটি নেই। তাই এই উপজেলায় ১৪ জনের নাম উল্লেখ করে কমিটি দেওয়া হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, আহ্বায়ক কমিটির মাধ্যমে সম্মেলন করে একটি পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হবে। আহ্বায়ক কমিটিতে নাম নেই এমন যোগ্য নেতাও এই কমিটির প্রার্থী হতে পারবেন। তবে কোন অছাত্র, চাঁদাবাজ, বিবাহিত ও সন্ত্রাসীদের ঠাই হবেনা বলেও জানান তিনি।