স্বামী অন্য মেয়েদের দিকে তাকালে কী বলেন কাজল?

বৃহস্পতিবার, মে ১৬, ২০১৯

বিনোদন ডেস্ক : বলিউডের জনপ্রিয় তারকা দম্পতি অজয় দেবগন এবং কাজল। ১৯৯৯ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি বলিউডের জনপ্রিয় এ দুই শিল্পী ভালোবেসে ঘর বেঁধেছিলেন। হেসে খেলে দাম্পত্য জীবনের ২০ বসন্ত পার করেছেন। আজও বলিউডে অন্যতম সেরা জুটি হিসেবে বিবেচিত হয় এই তারকা দম্পতি। তাদের ঘরে দুটি সন্তান রয়েছে। কন্যা নাইসা এবং ছেলে যুগ।

কিন্তু ৫০ বছর বয়েসে এসে কিনা প্রেমে পড়েছেন অজয়! সেটাও প্রায় অর্ধেক বয়সী একটি মেয়ের! এমটাই ঘটেছে অজয়ের জীবনে। না! ঠিক জীবনে নয়। রিল লাইফে অজয় এই পরিস্থিতিতে পড়েছিলেন। তার আসন্ন ছবি ‘দে দে পেয়ার দে’র চিত্রনাট্য মেনেই অজয়ের চরিত্র তার থেকে অর্ধেক বয়সী একটি মেয়ের প্রেমে পড়েছে। কিন্তু বাস্তবেও কি এই ঘটনা ঘটে?

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে অজয় জানিয়েছেন, বাস্তবে কখনো কাজল ছাড়া অন্য কোনো মেয়ের প্রেমে পড়েননি তিনি। কিন্তু অন্য মেয়েদের দিকে তাকিয়েছেন বহুবার। আর সেই পরিস্থিতিতে যদি কাজল ধরে ফেলেন? কী বলেন তিনি? অজয়ের কথায়, “অন্য মেয়েদের দিকে তাকাচ্ছি দেখলে কাজল এমন একটা কমেন্ট করে, সেটাই জোক হয়ে যায়।”

সিনেমায় দেখা যাবে, অজয় একজন মধ্যবয়স্ক মানুষ। প্রেমে পড়ে যায় ২৬ বছরের একটা মেয়ের। কিন্তু সেই প্রেমের মধ্যে ভিলেন হয়ে ঢোকেন টাবু। রাকুল ও টাবুর মধ্যে অজয়কে পাওয়া নিয়ে ঝামেলা শুরু হয়। আশা করা যায় সিনেমাটি বেশ মজাদার হবে। কারণ সিনেমার চিত্রনাট্য লিখেছেন ‘পেয়ার কি পাঞ্চনামা’ ও ‘সোনু কি টিটু কি সুইটি’ খ্যাত লাভ রঞ্জন। আজ প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে ‘দে দে পেয়ার দে’ সিনেমাটি। সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা