চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা বাড়াতে সংসদে প্রস্তাব

বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২৫, ২০১৯

ঢাকা : সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা বাড়াতে সংসদ অধিবেশন সিদ্ধান্ত প্রস্তাব আনা হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে সংসদের বেসরকারি দিবসে বগুড়া-৭ থেকে নির্বাচিত আওয়ামী লীগের এমপি মো. রেজাউল করিম বাবলু প্রস্তাবটি উত্থাপন করেছেন। সরকারি চাকরিতে ঢোকার বয়সসীমা ৩৫ বছরে উন্নীত করা হোক- লিখে প্রস্তাবটি আনেন তিনি।

এসময় সংসদের সভাপতিত্বে ছিলেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। সংসদে সিদ্ধান্ত প্রস্তাবটি গ্রহীত হলে এ নিয়ে সরকারের কাজ করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। তবে এটি গ্রহণ করা হবে কি-না তা আজ রাতেই জানা যাবে। এমনকি কেন প্রস্তাবটি গ্রহণ করা হবে না বিষয়ে জনপ্রশাসন মন্ত্রী উত্তর দেবেন।

জানা গেছে, সংসদ চলাকালীন বৃহস্পতিবার বেসরকারি দিবস হিসেবে রাখা হয়। এদিন মন্ত্রী নয় শুধু এমপিদের বিল ও সিদ্ধান্ত প্রস্তাব আনা হয়। এজন্য এটিকে সংসদের বেসরকারি দিবস বলা হয়।

সংসদের আইন শাখা-২ এর সূত্র জানায়, এমপিদের আনা সিদ্ধান্ত প্রস্তাবে মন্ত্রী একমত না হলে তিনি ব্যাখ্যা করে সেই সিদ্ধান্ত প্রস্তাবটি প্রত্যাহারের অনুরোধ করেন। আর গ্রহণ করার হলে গ্রহণ করেন। তবে সিদ্ধান্ত প্রস্তাব গ্রহণ বা প্রত্যাখান-দুটোই হ্যাঁ বা না ভোটে দিয়ে পাস করে নিতে হয়। ফলে এটি এক ধরনের আইনও বলা যায়।

স্বাধীনতার পর সংসদে এমপিদের ভোটে ২৩টি সিদ্ধান্ত প্রস্তাব গৃহীত হলেও এগুলো বাস্তবায়ন তেমন হয়নি। বিগত দশম সংসদে সংসদে চারটি সিদ্ধান্ত প্রস্তাব গৃহীত হয়। কিন্তু যত সমারোহে সিদ্ধান্ত প্রস্তাবগুলো গ্রহণ করা হয়, তত গুরুত্ব দিয়ে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে আইন করা বা ব্যবস্থা নেয়া হয় না।

সংসদের কার্যপ্রণালি বিধি ১৪৩ এর (২) ধারা অনুযায়ী, গৃহীত সিদ্ধান্ত সম্পর্কে কোনো ব্যবস্থা নিয়ে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রী পরে সংসদে তা জানাবেন। কিন্তু দশম সংসদে চারটি সিদ্ধান্ত প্রস্তাব পাস হলেও এ সম্পর্কে মন্ত্রীরা কে কী করেছেন-তা সংসদে জানানো হয়নি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সাবেক আইনমন্ত্রী শফিক আহমেদ বলেন, সিদ্ধান্ত প্রস্তাব সম্পর্কে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রীরা সংসদে জানাবেন-এটাই আইন। সেটা না মানাটা সংসদীয় চর্চার বড় ব্যাঘাত।