স্কুল ছাত্রীকে শ্লীলতাহানি করায় ৫ বছর সাজা

মঙ্গলবার, এপ্রিল ২৩, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক : স্কুল ছাত্রীকে শ্লীলতাহানি করায় এক লম্পটকে ৫ বছর কারাদণ্ড সহ ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও তিন মাস কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। ২৩ এপ্রিল মঙ্গলবার জেলা জজ আবু শামীম আজাদ বিচারাধীন বরিশালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আসামীর উপস্থিতিতে এ দন্ড দেন।

সাজাপ্রাপ্ত আসামীর নাম মিজানুর রহমান বেপারী ওরফে ঠোঁট কাটা মিজান। বাড়ি বানারীপাড়া উপজেলার শিয়ালকাঠি গ্রামে। তার বাবার নাম জাফর আলী বেপারী। তার বিরুদ্ধে ২০০৮ সালের ১ নভেম্বর বানারীপাড়া থানায় মামলা দায়ের করেন একই এলাকার আব্দুল মান্নান ফরাজি। অভিযোগে তিনি বলেন, তার মেয়ে বানারীপাড়া বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে পড়াশোনা করে।

স্কুলে আসা যাওয়ার সময় মিজান তাকে অশালীন কথা বলত।মেয়ে বিষয়টি তার বাবাকে জানালে মিজানকে নিষেধ করা হয়। এতে তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে একই সালের ২৯ অক্টোবর বিকেলে স্কুল থেকে ফেরার সময় পিছন থেকে গিয়ে বাদীর মেয়েকে ঝাপটে ধরে।

ধর্ষণের উদ্দেশ্যে শ্লীলতাহানি ঘটায়। মেয়ে ডাক চিতকার দিলে স্থানীয়রা ছুটে এলে মিজান পালিয়ে যায়। এ ধরনের অভিযোগ দেয়া হলে তদন্তে সত্যতা পেয়ে থানা পুলিশ ২৮ নভেম্বর চার্জশিট দাখিল করেন।

রাষ্ট্রপক্ষ ৯ জনের মধ্যে ৫ জনের সাক্ষ্য দিতে সক্ষম হয়। সাক্ষী প্রমাণে দোষী সাব্যস্ত হলে আদালত ওই সাজা দেন। রায় শেষে সাজাভোগে আসামীকে বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয় বলে আদালত সূত্র জানায়।