ববিতে ভিসির পদত্যাগের দাবীতে গনসাক্ষর ও অবস্থান কর্মসূচি

মঙ্গলবার, এপ্রিল ২৩, ২০১৯

বরিশাল : বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের প্রতি উপাচার্য প্রফেসর ড. এস এম ইমামুল হকের লিখিত আবেদনকে মিথ্যাচার বলে দাবী করে তার পদত্যাগের দাবীতে গনসাক্ষর ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করছে শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মচারীরা।

সরকারি ছুটি ও পবিত্র শব-ই-বরাতের কারনে ২ দিন আন্দোলন কর্মসূচি স্থগিত থাকার পরে আজ মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) ২৬তম দিনে সকাল ৯ টায় উপাচার্য‘র পদত্যাগেরে দাবীতে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবনের সামনে অবস্থান নিয়ে গনসাক্ষর কর্মসূচি পালন শুরু করে তারা। যেখানে বিগত দিনগুলোর থেকে বেশি শিক্ষার্থীদের অবস্থান লক্ষ্য করা গেছে।

পাশাপাশি সকাল থেকেই একাডেমিক ভবন ঘিরে শিক্ষক-কর্মচারীদের উপস্থিতিও লক্ষ্য করা গেছে। তবে অবাঞ্চিত ঘোষনা দেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিষ্ট্রার ও জনসংযোগ কর্মকর্তাসহ উর্ধতন কর্মকর্তাদের আন্দোলনের শুরু থেকেই ক্যাম্পাসে দেখা যায়নি।

ধারাবাহিকতায় আজও তাদের দেখা যায়নি। এদিকে ভিসির দেয়া ডাকে সারা দিয়ে কোন শিক্ষার্থীই ক্লাশে যায়নি। আবার ক্লাশ করানো নিয়ে শিক্ষকদেরও কোন তৎপড়তা লক্ষ করা যায়নি। শিক্ষার্থীদের দাবী, যে ভিসিকে আমরা ক্যাম্পাসে অবাঞ্চিত ঘোষনা করেছি, যার পদত্যাগ চাইছি, তার ডাকে সারা দেয়ার প্রশ্নই ওঠে না।

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী লোকমান হোসেন ও শফিকুল ইসলাম, উপাচার্য (ভিসি) র একটি লিখিত আবেদন প্রকাশ পেয়েছে। যেখানে তিনি বলেছেন ৫% শিক্ষার্থীর আন্দোলন এটি, বাকীরা নাকি তার পক্ষে । যা সম্পূর্ণ মিথ্যাচার। আর ৫% এর আন্দোলন হলে, বাকীরা সবাই তার পক্ষে থাকলে তিনি কেন বিশ্ববিদ্যালয়ে আসেন না।

শিক্ষার্থীদের দাবী, ভিসি ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবসে শিক্ষার্থীদের রাজাকারের বাচ্চা বলে গালি দিয়েছেন এবং ঠিক এর ২৭ দিনের মাথায় লিখিতভাবে আবার শিক্ষার্থীদের সন্ত্রাসী বলেছেন। তাই ২৬ মার্চ থেকে শুরু হওয়া আন্দোলন এই ভিসির পদত্যাগ না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে।