মিডিয়ার সামনে কান্নাকাটি, তাসকিনকে ভালো চোখে দেখলেন না সুজন

শনিবার, এপ্রিল ২০, ২০১৯

স্পোর্টস ডেস্ক : গত মঙ্গলবার ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের জন্য ১৫ সদস্যের দল ঘোষণা করে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। ইনজুরি থেকে পুরোপুরি সুস্থ না হওয়ায় দলে সুযোগ পেতে ব্যর্থ হন পেসার তাসকিন আহমেদ। বিশ্বকাপ দলে জায়গা না পেয়ে ভেঙে পড়েন তাসকিন আহমেদ।

দল ঘোষণার দিনই সংবাদমাধ্যমের সামনে দলে সুযোগ না পাওয়ার প্রতিক্রিয়া জানান ডানহাতি পেসার। এ সময় আবেগপ্রবণ হয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন তাসকিন।

তবে মিডিয়ার সামনে জাতীয় দলের এই পেসারের এভাবে কান্নাকাটি করাটা ভালো চোখে দেখছেন না সাবেক অধিনায়ক এবং বিশ্বকাপ দলের ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজন।

দলে সুযোগ না পেয়ে তাসকিনের কান্না নিয়ে সংবাদমাধ্যমের কাছে নিজের অভিমত জানান খালেদ মাহমুদ। এই কান্নার ঘটনায় কিছুটা নাখোশ হয়ে সুজন বলেন,‘আমি সবসময় তাসকিনকে অন্য চোখে দেখি।

খুব ছোট থেকেই ওকে দেখে এসেছি। আমার কাছে ব্যাপারটা ভালো লাগেনি। এখন যথেষ্ট বড় হয়েছে সে। এখন তো আর অনূর্ধ্ব-১৯ দলে খেলছে না সে। খেলোয়াড়দের খারাপ সময় যাবে, আবার ভালো সময়ও আসবে। নির্বাচকরা একটি মাত্র কারণেই ওকে নিতে পারেনি, সেটা হচ্ছে ফিটনেসের ঘাটতি।’

তাসকিনের প্রতিক্রিয়া জানানোর প্রক্রিয়াকে শিশুসুলভ আখ্যা দিয়ে সুজন বলেন, ‘ব্যাপারটা যেভাবে মিডিয়া বা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এসেছে, আমি মনে করি এটা জাতীয় দলের একজন ক্রিকেটারের জন্য মর্যাদাহানিকর। এটা শিশুসুলভ আচরণ। মানসিকতার দিক থেকে আমাদের শক্তিশালী হতে হবে। আমরা শক্তিশালী প্রতিপক্ষের বিপক্ষে খেলি। অনেক কঠিন অবস্থা আসবে।’

সর্বশেষ ২০১৭ সালে বাংলাদেশ দলের হয়ে ওয়ানডে খেলেছিলেন তাসকিন আহমেদ। এরপর ইনজুরি ও অফ ফর্মের কারণে দল থেকে ছিটকে যান। পুরো ২০১৮ সাল আর ওয়ানডে দলে ডাক পাননি ডানহাতি পেসার। এবারের বিপিএল দিয়ে নিজের স্বরূপে ফিরেন তিনি।

বিপিএলে সেরা বোলারদের শীর্ষ তালিকায় থাকা এই পেসার ডাক পেয়ে যান নিউজিল্যান্ডগামী দলে। কিন্তু বিপিএলের একেবারে শেষদিকে দুর্ভাগ্যজনকভাবে আবার ইনজুরির শিকার হন দ্রুতগতির এই বোলার। সম্প্রতি প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচ দিয়ে মাঠে ফিরলেও ফিটনেস নিয়ে নির্বাচকদের সন্তুষ্ট করতে ব্যর্থ হন তাসকিন।

বাংলাদেশের চূড়ান্ত দল নির্বাচনের আগে অধিনায়ক ও নির্বাচকদের সাথে বৈঠক করেছেন খালেদ মাহমুদ সুজন। বিশ্বকাপ ও আয়ারল্যান্ড সফরে ম্যানেজারের দায়িত্ব থাকবে তাঁর কাঁধেই।

নির্বাচক ও ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে আলাপের সূত্র ধরে সুজন বলেন,‘যেকোনো খেলোয়াড়ই চায় দলে জায়গা পেতে। আমরা জানি তাসকিন ফিট থাকলে তাকে নেওয়া হতোই। ওর মধ্যে যে সামর্থ্য আছে এতে কোনো সন্দেহ নেই। ভালো বল করে, বেশ জোরে বল করে। আমাদের এমন একটা জোরে বোলার দরকার ছিল। দলে ডাক না পাওয়ার হতাশা থাকতেই পারে। কিন্তু এটা জনসম্মুখে আসা ঠিক না।’