‘আমি তো ফাঁসতামই, অন্যরাও ফেঁসে যেত!’

সোমবার, মার্চ ২৫, ২০১৯

বিনোদন ডেস্ক : প্রযোজক হিসেবে সালমান খান যে ভাবে নতুন প্রতিভাদের লঞ্চ করছেন, তাতে ইন্ডাস্ট্রির তরফে বাহবা প্রাপ্য অভিনেতার। বিষয়টা নতুন নয়। তার দীর্ঘ তালিকায় এবার নতুন নাম যোগ হয়েছে, প্রানূতন এবং জ়াহির ইকবাল। সালমানের প্রযোজনায় ‘নোটবুক’ ছবিতে অভিনয় করছেন দু’জন।

‘নোটবুক’ বললেই হলিউডের সেই কাল্ট রোম্যান্টিক ছবির কথা ভাবেন অনেকে। কিন্তু সালমান জানালেন, তার ছবিটি ‘টিচার্স ডায়েরি’ নামের থাইল্যান্ডের একটি ছবি থেকে অনুপ্রাণিত।

বললেন, “এটা হিন্দি ছবি। সেটা মাথায় রেখেই চিত্রনাট্য লিখেছি আমরা। ছবির শুটিং করেছি কাশ্মীরে।”

ছবিটি করার ক্ষেত্রে সালমানের মাথায় একটাই বিষয় ছিল। ফ্রেশ জুটি নিয়ে আসতে চেয়েছিলেন তিনি। প্রানূতন হলেন অভিনেতা মণীশ বহেলের মেয়ে। জ়াহির আবার সালমানের ছোটবেলার বন্ধুর ছেলে।

দুই নবাগতকে নিয়ে অভিনেতা বলছিলেন, ‘‘দু’জনেই খুব পরিশ্রমী। অভিনয় ভাল করার জন্য অনেক কাজ করেছে। প্রানূতনের অডিশন আমি আগেও এক বার দেখেছিলাম। সে বার খুব ইমপ্রেসড হয়েছিলাম। তার পরে শুনলাম, আইন নিয়ে পড়াশোনা করছে ও। সঙ্গে অভিনেত্রীও হতে চায়। ’

সালমানকে প্রশ্ন করা হল, ‘জীবনে কোনও দিন ডায়েরি লিখেছেন কি না? উত্তরে সপাট জানিয়ে দিলেন “অনেক আগে লিখতাম। আর আমার ডায়েরিতে অন্যদের সম্পর্কেও সত্যি কথাগুলোই লেখা থাকত। তাই আমি তো ফাঁসতামই! আমার সঙ্গে অন্যরাও ফেঁসে যেত। তাই লেখা বন্ধ করে দিয়েছি!’

ইদানীং অভিনয়, না কি প্রযোজনা— কোনটা অনায়াসে করতে পারছেন তিনি? “দুটোই খুব পছন্দের কাজ। কিন্তু বেশি কঠিন ছবির প্রযোজনা। চিত্রনাট্য লেখা থেকে, মিউজ়িক তৈরি করা, কাস্টিং সব কিছু ঠিক ভাবে হচ্ছে কি না, সেটা দেখার দায়িত্ব বেশ কঠিন। ভাল গান বানানো কিন্তু আমার কাছে খুব জরুরি। এমন গান যার রিকল ভ্যালু থাকে,” ব্যাখ্যা অভিনেতার।