ঘামের দুর্গন্ধ কমাবেন যেভাবে

রবিবার, মার্চ ২৪, ২০১৯

লাইফস্টাইল ডেস্ক : প্রকৃতির পরিবর্তনে এখন চলছে গরমকাল। বাইরে বের হলেই গায়ে লাগছে কড়া রোদ। বাস, রিক্সা বা যেকোনো যানবাহনই ব্যবহার করুন না কেন গরমে ঘাম তো হবেই। বিশেষ করে অফিস যাতায়াতের পথে ঘাম হয় বেশি। আর যাদের অতিরিক্ত ঘাম হয়, এই সময়টা তাদের বিশেষভাবে সচেতন থাকা দরকার।

ঘাম কোনো ক্ষতির কিছু নয় কিন্তু ঘামের দুর্গন্ধ কমাতে হবে তা না হলে পাশের মানুষদের বিরক্তির কারণ হবেন আপনি। বরং ঘাম বেশি হলে মেনে চলুন কিছু জরুরি স্বাস্থ্যকর উপায়। এতে সহজেই এড়াতে পারবেন ঘামের দুর্গন্ধ।

ঘামের দুর্গন্ধ কমানোর প্রথম ও প্রাথমিক শর্ত নিজেকে পরিষ্কার রাখা। আবহাওয়া গরম হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে বার বার গোসল করেন অনেকেই। ঠাণ্ডা লাগার সমস্যা না থাকলে এই অভ্যাসটি করতে পারেন। এতে ঘাম জমতে পারবে না বেশি সময়।

দুর্গন্ধ এড়াতে পানিতে যোগ করুন এসেনশিয়াল অয়েল বা ফটকিরি। পটাশিয়াম পারম্যাঙ্গানেট মিশিয়েও গোসল করতে পারেন। শরীরে পানির অভাব হলেও টক্সিন জমবে। তার ফলে ঘামেও দুর্গন্ধ হবে। তাই পানি খান পর্যাপ্ত।

গোসলের পর ঘাড়, কবজি, কোমরের অংশে বডি মিস্ট লাগিয়ে নিন। খুব রাসায়নিকযুক্ত সুগন্ধী কিন্তু এ ক্ষেত্রে কোনো কাজে আসবে না। বরং হালকা গন্ধযুক্ত মিস্ট ব্যবহার করুন।

চেষ্টা করুন সব সময়ই সুতির পোশাক পড়তে। এতে ঘামের পরিমান কমবে, ঘাম শোষণও হবে বেশি। কেবল ঘাম নয়, এড়িয়ে চলুন রোদে পুড়ে যাওয়াও। তাই টুপি, সানগ্লাস, সানস্ক্রিন ব্যবহার করতেই হবে। সানস্ত্রিনের এসপিএফ ছাড়াও আরো কিছু বিষয় মাথায় রাখতে হয়। তাই ত্বক বিশেষজ্ঞের সঙ্গে কথা বলে সানস্ত্রিন লাগান।

রোদ থেকে ঘেমে বাড়ি ফিরলে টমেটোর রসের সঙ্গে এসেনশিয়াল অয়েল মিশিয়ে শরীরের খোলা অংশে লাগান। এতে সানবার্ন কমার সঙ্গে দুর্গন্ধও কমবে।

পরিষ্কার রাখুন আন্ডারআর্ম। এই অংশ চাপা থাকায় এখানে ঘাম জমে বেশি। পরিষ্কার থাকলে ঘাম জমে থাকার সম্ভাবনা কমবে।

গরমে মোজা পড়লে অবশ্যই প্রতিদিন মোজা সাবান দিয়ে পরিষ্কার করুন। চিকিৎসকে দেখিয়ে হালকা পাউডার মোজা পড়ার আগে পায়ে লাগিয়ে নিন।