বিএনপিহীন নির্বাচনের ভোটগ্রহণে ভোটার শূন্য

সোমবার, মার্চ ১৮, ২০১৯

ঢাকা: চলছে পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপের ভোটগ্রহণ। সকাল ৮টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হলেও কেন্দ্রগুলোয় ভোটারদের উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়নি। বেলা বাড়লেও কোনো কোনো কেন্দ্রে ৫ শতাংশও ভোটও পড়েনি। আবার দুই-একটি কেন্দ্রে তিন-চারটি করে ভোট পড়েছে।

রবিবার (১০ মার্চ) বেলা ১১টার দিকে ব্রেকিংনিউজের একাধিক জেলা প্রতিনিধি এতথ্য জানান।

প্রথম ধাপের উপজেলা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে গত ১০ মার্চ। সেই নির্বাচনে ভোটও পড়েছে তুলনামূলকভাবে কম। বিএনপি-জামায়াত নেতৃত্বাধীন ২০–দলীয় জোটসহ অন্যান্য রাজনৈতিক দল ও জোট বর্জন করায় এ নির্বাচনও অনেকটা একতরফা হচ্ছে। এর মধ্যে দ্বিতীয় ধাপের ২৩টি উপজেলায় আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থীরা বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়ে গেছেন।

সিলেট
সিলেটের ১২ উপজেলায় সকাল ৮টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে তিনঘণ্টা অতিবাহিত হলেও সিলেট সদর উপজেলার বেশ কয়েকটি কেন্দ্রে ভোট পড়েছে হাতেগোনা কয়েকটি। কিছু কিছু কেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতিও খুব নগন্য। নেই ভোটারের লাইন।

সিলেট সদর উপজেলার ৫নং টূলটিকর ইউনিয়নের ১, ২, ৩ নং ওয়ার্ডের ভোটকেন্দ্র হলো মীরাপাড়া আব্দুল লতিফ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। তিনটি এলাকার প্রায় তিন হাজারের বেশি ভোটার থাকলেও ভোট শুরু হওয়ার তিন ঘণ্টা পর্যন্ত তেমন ভোটার নেই।

ঐ কেন্দ্রের দায়িত্বে থাকা প্রিজাইডিং অফিসার পৃথিশ সরকার জানান, সাড়ে আটটা পর্যন্ত কোনো ভোটার আসেননি। এখন কয়েকজন ভোট দিয়েছেন মাত্র।

সকাল ১০টায় সিলেট সদর উপজেলার আখালিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে গিয়ে দেখা যায়, ওই কেন্দ্রে মাত্র ৭ জন নারী ও ২৭ জন পুরুষ তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন। কেন্দ্রটিতে মোট ভোটার সংখ্যা প্রায় ৭ হাজার জন।

আখালিয়া কেন্দ্রের মতো প্রায় সবকটি কেন্দ্র ভোটার শূন্য বলে খবর পাওয়া গেছে। তবে বেলা বাড়ার সাথে সাথে ভোটার উপস্থিতিও বাড়বে বলে আশাবাদী প্রার্থীরা।

এছাড়া সিলেট সদর ও দক্ষিণ সুরমা উপজেলাও ছাড়াও সিলেট জেলার ১২ উপজেলার বিভিন্ন ভোটকেন্দ্রে এমন অবস্থা বলে জানিয়েছেন আমাদের উপজেলা প্রতিনিধিরা।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন বেলা বাড়ার সাথে সাথে ভোটার উপস্থিতি বাড়তে পারে। তবে, বিএনপিবিহীন এ নির্বাচনে শেষপর্যন্ত ভোটার উপস্থিতি বাড়োবে কি না তা নিয়ে আশংকায় প্রার্থীরা। সকাল থেকেই তারা ভোটারদের ভোটকেন্দ্রে নিয়ে আসতে নানা কৌশল অবলম্বন করছেন।

মৌলভীবাজার
দ্বিতীয় ধাপে মৌলভীবাজার সদরসহ সাত উপজেলায় ভোটগ্রহণ চলছে। তবে কেন্দ্রগুলোয় সেভাবে ভোটার উপস্থিতি নেই। বিভিন্ন কেন্দ্র ঘুরে এমনটাই দেখা গেছে।

সরেজমিনে শ্রীমঙ্গল উদয়ন উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ে ভোটার উপস্থিতি দেখা যায়নি। এ কেন্দ্রে মোট ভোটার ২২৯২ জন। সকাল সোয়া ৯টায় এ ভোটকেন্দ্রে গিয়ে ভোটারের দেখা মেলেনি।

এ কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার সনজীত কুমার দাস বলেন, ‘কেন্দ্রে ৬টি বুথ রয়েছে। এ পর্যন্ত ভোট কাস্টিং মাত্র ৬টি। ভোটার উপস্থিতি নেই।’

পাবনা
সদর উপজেলা ছাড়া জেলার বাকি ৮টি উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সকাল ৮টা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। তবে জেলার সবক‘টি উপজেলার ভোট কেন্দ্রগুলোতে সাড়ে ৮টা পর্যন্ত তেমন ভোটারদের উপস্থিতি চোখে পড়েনি।

দিনাজপুর
দিনাজপুরের ১২ উপজেলায় উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ চলছে। নির্বাচনে নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বোচাগঞ্জ উপজেলার ধনতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে সকাল সাড়ে ৮টায় ভোট দেন।

এদিকে সকালে ভোটকেন্দ্রগুলোতে ভোটারদের উপস্থিতি তেমন লক্ষ্য করা যায়নি। তবে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভোটারদের উপস্থিতিও বাড়বে বলে আশা করা হচ্ছে।