দিনে একটি কমলালেবু খেয়ে পাবেন যে উপকারিতা

বৃহস্পতিবার, মার্চ ১৪, ২০১৯

স্বাস্থ্য ডেস্ক : তারুণ্য ধরে রাখার চেষ্টা চলছে সেই প্রাচীন কাল থেকেই। প্রচার মাধ্যমগুলোতেও তারুণ্যকে বেশি দিন টিকিয়ে রাখতে থাকছে নজরকাড়া সব বিজ্ঞাপন। কিন্তু এসবই ঝক্কি-ঝামেলা আর ব্যয়বহুলও বটে।

এমনকি এগুলো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও অনেক। চিন্তার কিছু নেই- বিজ্ঞানীরা দিয়েছেন এক আশাজাগানিয়া তথ্য। দিনে একটি মাত্র কমলাই আপনার তারুণ্যকে ধরে রাখবে বহুদিন।orange-nmnn.thumbnail

এক পরীক্ষা থেকে জানা যায়, সাইট্রাস খাবার প্রতিদিন নিয়ম করে খেলে পাকস্থলী, ল্যারিংক্স ও মুখের ক্যানসার ৫০ শতাংশ কমে যাবে। সাইট্রাস বলতে মূলত বুঝায় ভিটামিন ‘সি’ তে ভরপুর লেবু জাতীয় ফলকে; লেবু, কমলা, জাম্বুরা, বাতাবিলেবু, সাতকরা, মাল্টা।

এ জাতীয় ফলগুলোকে বলা হয় হেস্পেরিডিয়াম, যার ছোট ছোট কোয়া গুলো থাকে রসে ভরপুর। আর এই সাইট্রাস খাবারের সবচেয়ে বড় এবং সহজপ্রাপ্য উত্স হল কমলালেবু। বিশেষজ্ঞরা তাই ক্যানসারের বিরুদ্ধে যুদ্ধে কমলালেবুকেও একটি শক্তিশালী হাতিয়ার হিসেবে দেখছেন।

কমলালেবুতেই আছে প্রায় ১৭০ রকমের ভিন্ন ভিন্ন ফাইটোকেমিক্যাল। যা শরীরের জন্য অত্যন্ত উপকারী এবং শরীরকে কর্মক্ষম রাখতেও সাহায্য করে। কমলার এই উপাদানগুলো ধমনীতে চর্বি জমতেও বাধা দেয়। এই কমলাতেই আছে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন সি এবং ভিটামিন সি শরীরের রোগ প্রতিরোধক্ষমতাও বাড়িয়ে দেয় বহু গুণ।

মিষ্টি এবং রসে ভরপুর কমলা লেবু সারা দেশ জুড়ে বেশ জনপ্রিয়৷ এই ফলটি আমাদের শরীরে ভিটামিন সি এবং ফোলেট বলে একটি উপাদান এর পুষ্টি যোগায়৷ শুধু তাই নয় এই ফলটি আপনার শরীরের বাড়তি মেদকেও ঝড়িয়ে দেয়৷ এটি ভীষণ ভারী, ফলে আপনার শরীরে বাজে ক্যালোরি যোগ হওয়ার থেকে পুরেপুরি বিরত রাখে৷ এর সঙ্গেও কমলালেবুর মধ্যে থাকা স্বাভাবিক মিষ্টি আমাদের শরীরের গ্লুকোজের চাহিদাটাও মিটিয়ে দেয়৷কমলা-লেবুর-খোসার-ব্যবহার

ভিটামিন সি শরীরে এন্টি-অক্সিডেন্ট হিসেবে কাজ করে ;সর্দি কাশিকে দূরে রাখে। একটি মাত্র কমলায় থাকে প্রায় ৭০ মিলিগ্রাম ভিটামিন সি। এই ভিটামিনটি পানিতে দ্রবীভূত হয় বলে অপ্রোয়জনীয় অংশটুকু শরীর থেকে বেরিয়ে যায়। তাই একদিনে বেশি না খেয়ে প্রতিদিন নিয়ম করে একটি কমলা খান।

নিয়মিত কমলা গ্রহনের অভ্যাস পাল্টে দিবে আপনার স্বাস্থ্যকথা।জেনে-নিন-ত্বকের-যত্নে-কমলালেবুর-ব্যবহার শুধু তারুণ্য নয় ত্বকের যত্নে কমলার খোসাও যাদুকরি ফল দেয়।

কমলালেবুর খোসা ভালমত বেটে এর সাথে পরিমাণমতো বেসন ও গোলাপজল ভালো করে মিশিয়ে নিন। মিশ্রনটি সম্পূর্ণ মুখ ও গলায় লাগান। শুকালে হাল্কা করে সার্কুলার মুভমেন্টে ঘসে নরমাল পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন। এবার দেখুন এর ফলাফল।

কমলালেবুর খোসা শুকিয়ে গুড়ো দীর্ঘদিন ব্যবহার করতে পারেন।