প্রেমের টানে ভারতে গিয়ে গ্রেফতার বাংলাদেশি যুবতী

বুধবার, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০১৯

ভারত ডেস্ক: প্রেমের টানে বাংলাদেশ থেকে অবৈধভাবে ভারতে গিয়ে গ্রেফতার হয়েছে বাংলাদেশি যুবতী। বাংলাদেশি যুবতীর সঙ্গে থাকা চার যুবককেও গ্রেফতার করেছে ভারতীয় পুলিশ।

জানা গিয়েছে, নওগাঁর মহাদেবপুর কাছারি পাড়ার একুশ বছর বয়সী শেফালি রানি মহন্ত। তার সঙ্গে পশ্চিমবঙ্গের নদীয়ার জেলার বাসিন্দা সত্যেন রানার সোশ্যাল মিডিয়ায় পরিচয় হয় । প্রেমের গল্প ধীরে ধীরে বিয়ে পর্যন্ত পৌঁছায়। এরপরেই ছেলেটির কথামত মেয়েটি হিলি সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে ভারতে প্রবেশ করে। হিলি থেকে একটি গাড়িতে করে মেয়েটিকে নিয়ে যাচ্ছিল নদীয়া জেলার বাসিন্দা সত্যেন রানা (২৬), অরুপ বিশ্বাস (২০), মহাদেব সরকার (২৮) এবং গাড়ির চালক আশিস বিশ্বাস (২৭)।

সোমবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) রাত ১২টা নাগাদ বালুরঘাট শহরের মঙ্গলপুরে গাড়িটি আটকায় বালুরঘাট থানার পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদে অসঙ্গতি মিলতেই যুবতী-সহ চার যুবককে গ্রেফতার করে। আটক সবাইকে মঙ্গলবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) বালুরঘাটের জেলা আদালতে তোলা হয়েছে।

অবৈধভাবে ভারতে প্রবেশকারী বাংলাদেশি যুবতী ভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে জানান, বাংলাদেশে তার বাবার একটি চায়ের দোকান রয়েছে। বিয়ে করবে বলে ছেলেটি তাকে ভারতে যেতে বলেছিল। সেইমতো ভারতে যাওয়ার পরিকল্পনা নেয় সে। বাড়ির ছাগল বিক্রি করে ছয় হাজার টাকা পায়। এরপর দালাল মারফত হিলি দিয়ে অবৈধভাবে ভারতে ঢোকে।

বালুরঘাট থানার পুলিশ জানিয়েছে, মেয়েটিকে বিক্রি বা অন্য অসৎ উদ্দেশ্যে চারজন যুবক নিয়ে যাচ্ছিলো। তাদের গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ।