ফেসবুকে প্রাক্তনকে ব্লক করা উচিৎ?

শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ১, ২০১৯

লাইফস্টাইল ডেস্ক : এখনকার দিনে সম্পর্ক ভাঙলে নিজের দু:খ-কষ্ট শেয়ার করছেন ফেসবুক কিংবা বিভিন্ন স্যোশ্যাল মিডিয়ায়। অনেকেই ব্রেকআপের পর সোশাল মিডিয়ায় প্রাক্তনকে ব্লক করে দেন। কারণ প্রাক্তনের মুখটাও দেখতে চাননা তারা। কিন্তু সেটা কি আদৌ উচিত? সোশাল মিডিয়ায় প্রাক্তনকে ব্লক করবেন কিনা, এক কথায় সে প্রশ্নের উত্তর দেওয়াটা মুশকিল কারণ শুধু ‘হ্যাঁ’ বা ‘না’ দিয়ে এর উত্তর হয় না। কাজেই সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে কিছু কথা মাথায় রাখা দরকার।

সোশাল মিডিয়ায় তার পোস্ট কি আপনাকে প্রভাবিত করছে?
আপনার উত্তরটা যদি ‘হ্যাঁ’ হয়, তা হলে ব্লক করা আপনার দিক থেকে ভালো। আপনার প্রাক্তন যদি ফুর্তিতেই থাকেন, দিব্যি নিজের সোশাল মিডিয়ায় নিত্যনতুন ফোটো বা স্টেটাস আপডেট দেন, সেটা দেখলে আপনার খারাপ লাগা স্বাভাবিক, বিশেষ করে আপনি যদি এখনও পুরোনো কথা ভুলতে না পেরে থাকেন। কিছুক্ষণ পর পর তার স্টেটাস চেক করার চেয়ে বরং ব্লক করে দেওয়া ভালো।

মানসিক শান্তি পেতে চান?
নিজের সোশাল মিডিয়া পোস্ট নিয়ে কি আপনি সারাক্ষণ সচেতন থাকছেন? কিছু পোস্ট করার আগে মনে হচ্ছে আপনার প্রাক্তন আবার কিছু ভাববেন না তো? এ ক্ষেত্রেও নিজের স্বাতন্ত্র ও মানসিক শান্তি ফিরে পেতে তাকে ব্লক করাই ভালো। বিশেষ করে আপনার জীবনে যদি নতুন কেউ এসে থাকেন, তা হলে প্রাক্তনকে ব্লক করে দিন। নিঃসঙ্কোচে খুশিমতো পোস্ট করতে পারবেন।

প্রাক্তনকে দ্রুত ভুলে যেতে চান?
‘চোখের বার তো মনের বার’ বলে যে প্রবাদটা আছে সেটা কিন্তু একেবারে ফেলে দেওয়ার মতো নয়। সারাক্ষণ প্রাক্তনকে চোখের সামনে দেখতে হলে তাকে ভুলে যাওয়া আপনার পক্ষে সম্ভব নয় এবং এটা সোশাল মিডিয়ার ক্ষেত্রেও সত্যি। ফলে সাময়িকভাবে হলেও ব্লক করে দিন। পরে যদি পুরোনো স্মৃতি থেকে বেরোতে পারেন, তা হলে ফের ফলো করার অপশন তো রইলই!

ব্লক? নাকি আনফলো?
যদি সত্যিই পুরোনো প্রেমের স্মৃতি আপনার কাছে আর গুরুত্বপূর্ণ না হয়ে থাকে, তা হলে ব্লকের বদলে আনফলো অপশনটাও ভেবে দেখতে পারেন। সে ক্ষেত্রে একটা আপাত ভদ্রতার মোড়কও থাকবে, আপনাকেও আর হৃদয়ভঙ্গের বেদনা পেতে হবে না।

নিজের প্রতি সৎ থাকুন
প্রাক্তনকে ব্লক করবেন, না আনফলো, নাকি খুব স্বাভাবিক আচরণই চালিয়ে যাবেন, এটা সম্পূর্ণভাবেই নির্ভর করছে আপনার মানসিকতার উপর এবং এ ক্ষেত্রে নিজের কাছে সৎ থাকাটাই সবচেয়ে জরুরি। নিজের মুখোমুখি দাঁড়ান, নিজেকে প্রশ্ন করুন, নিজের কাছে সৎ থাকুন ও সেই মতো কাজ করুন।

সূত্র : ফেমিনা