বিএনপিকে সংসদে আসার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

শনিবার, জানুয়ারি ১২, ২০১৯

ঢাকা: গণতন্ত্রের স্বার্থে বিএনপিকে সংসদে আসার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা।

শনিবার (১২ জানুয়ারি) বিকেলে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউস্থ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলটির উপদেষ্টা পরিষদ ও কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের যৌথসভায় তিনি এ আহ্বান জানান।

গত ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি ৬টি আসনে জয়ী হয়। তবে ভোটে কারচুপির অভিযোগ এনে নির্বাচন বর্জন করে দলটি। বিজয়ী সংসদ সদস্যরাও শপথ গ্রহণ থেকে বিরত থাকেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট থেকে ধানের শীষে একাদশ জাতীয় নির্বাচনে যে ক’জন জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হয়েছেন, গণতন্ত্রের স্বার্থে তাদের সংসদে আসা উচিত। বিএনপি মনোনয়ন বাণিজ্য না করলে হয়তো আরও কয়েকটি আসন তারা পেতে পারতো। তারপরও একটি দলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান যখন খুন ও দুর্নীতির মামলায় বিদেশে পালাতক তখন তাদের এমন ফল বিপর্যয় স্বাভাবিক।’

শেখ হাসিনা আরও বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সরকারে থাকলে দেশের মানুষ ভাল থাকে, মানুষের জীবনমান উন্নত হয়। কাউকে দারিদ্র্যের কষাঘাতে জর্জরিত হতে হয় না। মানুষ শান্তিতে থাকতে পারে। অর্থনৈতিক উন্নতি হয়। মানুষ নিজে থেকেই এসব উপলব্ধি করতে পারে।’

এসময় নির্বাচনকালীন বিভিন্ন ঘটনা ও প্রাণহানির জন্য বিএনপিকে দায়ী করেন আওয়ামী লীগ সভাপতি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘২০০৮ সালের পর ২০১৪ সালে আমরা আবারও সরকার গঠন করি। আমাদের সৌভাগ্য যে, আমরা একটানা দশ বছর হাতে সময় পেয়েছিলাম, যার ফলে বাংলাদেশ সারা বিশ্বে একটা উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে। রাষ্ট্র পরিচালনায় আমরা জনগণের সেবক হিসেবে কাজ করতে পেরেছি। এর ফলে ২০১৮ সালের নির্বাচনেও জয়লাভ করেছি।’

সভায় বিপুল ভোটে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগকে টানা তৃতীয় মেয়াদে বিজয়ী করায় দেশবাসীকে ধন্যবাদ জানান শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, ‘দেশবাসীর প্রতি আমাদের দায়বদ্ধতা আরও বেড়ে গেলো। দেশে শান্তি বজায় থাকলে উন্নয়ন করা যায়; সেটা আবারও প্রমাণ হলো।’

যৌথসভায় সদ্য প্রয়াত আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম ও সকল শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।