সাভারে শীর্ষ সন্ত্রাসী রাসেল মাদবরের গুলিতে ৩ নারীসহ গুলিবিদ্ধ ৭

শুক্রবার, জানুয়ারি ১১, ২০১৯

সাভার : সাভারে চাঁদার টাকা না পেয়ে আওয়ামীলীগ নেতার ছেলে ও স্থানীয় সন্ত্রাসী রাসেল মাদবরের এলোপাথারী গুলিবর্ষনে ৩ জন নারীসহ মোট ৭ জন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। গুলিবিদ্ধদের মধ্যে ২ জন ছাত্রলীগ কর্মি বলে জানা গেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও আহতদের স্বজনরা জানায়, বৃহষ্পতিবার সন্ধ্যায় সাভার পৌর এলাকার শাহীবাগ মহল্লায় সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজ রাসেল মাদবর ও অজ্ঞাতনামা আরেক ব্যক্তি এলাকার আসমা ব্রডব্যান্ড নেটওয়ার্ক এর মালিক ইন্টারনেট ব্যবসায়ী মো. ইউনুস পারভেজকে লক্ষ্য করে শর্টগান ও পিস্তল দিয়ে এলাপাথারী গুলিবর্ষন করে।

এসময় গুলিতে ৩ নারীসহ মোট ৭ জন গুলিবিদ্ধ হয়। গুলিবিদ্ধরা হলেন, শাহীবাগ এলাকার বাসিন্দা হুমায়ন কবিরের স্ত্রী ডলি আক্তার (৩৯), তাদের মেয়ে সুমাইয়া (২২), একই এলাকার মনজুর রহমানের স্ত্রী আলেয়া পারভীন (২৮), পৌর কৃষকলীগের সাধারন সম্পাদক আব্দুল মতিনের ছেলে ও সাবেক পৌর ৭ নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগ নেতা অপু (২৫), রেজাউল করিম (২৫), শরীফ (২৬) ও ছাত্রলীগ কর্মি ইসমাইল (২৬)।

গুলিবিদ্ধ ডলি আক্তারের স্বামী হুমায়ন কবির বলেন, হঠাৎই প্রচন্ড গুলির শব্দ শুনে তার স্ত্রী ও মেয়ে তাদের ৫ম তলার বাসার বারান্দায় এসে দাড়ায়। এসময় কিছু বুঝে ওঠার আগেই হঠাৎ দুটো গুলি এসে তার স্ত্রীর কোমরের নিচে ও মেয়ের বাম হাতে বিদ্ধ হয়। ঘটনার পরপরই আশঙ্কাজনক অবস্থায় গুলিবিদ্ধদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

এঘটনায় আসমা ব্রডব্যান্ড নেটওয়ার্ক এর মালিক ইন্টারনেট ব্যবসায়ী ইউনুস পারভেজ জানান, “গত কিছুদিন যাবত উপজেলা আ.লীগ নেতা কামাল মাদবরের ছেলে রাসেল মাদবর তার কাছে ১০ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করে আসছিলো। কিন্তু ইউনুস পারভেজ রাসেল মাদবরকে চাঁদা দিতে রাজি না হওয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে রাসেল মাদবর ও তার এক সহযোগী শর্টগান ও পিস্তল দিয়ে আজ দুপুরে তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে এলাপাথারী গুলিবর্ষন করে। এসময় তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের কর্মচারীসহ মোট ৭ জন গুলিবিদ্ধ হয়।

সাভার মডেল থানার উপ-টরিদর্শক (এসআই) সাফায়াতুর রহমান জানান, রাসেল মাদবর ও ইউসুফ পারভেজের মধ্যে গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটে। সরেজমিনে গিয়ে গুলিবিদ্ধ তিন মহিলাকে উদ্ধার করেন তিনি।

এবিষয়ে সাভার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল আওয়াল জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। তবে এঘটনায় এখন পর্যন্ত থানায় কেউ কোন অভিযোগ দায়ের করেনি।

উল্লেখ্য- রাসেল মাদবরের বিরুদ্ধে এর আগেও চাঁদাবাজির অভিযোগ ওঠে। এছাড়াও গত বছরের ৩রা নভেম্বর গভীর রাতে রাজধানীর রুপনগর থানা পুলিশ তাকে রুপনগর বেড়িবাধ এলাকা থেকে বিদেশি মদ ও দেশিও অস্ত্রসহ আটক করে।