লেমন স্ক্রাব যেভাবে সব ধরনের ত্বকে ব্যবহার করবেন

শনিবার, ডিসেম্বর ৮, ২০১৮

লাইফস্টাইাল ডেস্ক : নরম, কোমল, পরিষ্কার ত্বক কে না চায়? অনেকেই সুন্দর ত্বকের আশায় বিভিন্ন ধরনের প্রসাধনী ও পণ্য ব্যবহার করি। কিন্তু আমরা এটা ভাবি না, যে রাসায়নিক পূর্ণ এসব উপাদান ত্বকের ক্ষতিই করতে পারে।

ত্বকের যত্নে প্রাকৃতিক উপাদান ব্যবহার করাটা সবসময়েই ভালো। কারণ এতে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া কম হয়। রান্নাঘরের এমন একটি উপাদান আছে যা নিঃসন্দেহে ত্বকের হারানো দ্যুতি ফিরিয়ে আনতে পারে। আর তা হলো লেবু।

ত্বক চুল ও সার্বিক স্বাস্থ্যের সমূহ উন্নতি করতে পারে লেবু। আর সব ধরনের ত্বক উজ্জ্বল করে তুলতেই লেমন স্ক্রাব ব্যবহার করা যায়। কারণ এতে থাকা ভিটামিন সি ত্বকের জন্য খুবই উপকারী। একেক ধরনের ত্বকে অবশ্য একেক ধরনের স্ক্রাব ব্যবহার করতে হবে। দেখে নিন সাধারণ, শুষ্ক ও তৈলাক্ত ত্বকের জন্য লেমন স্ক্রাব ব্যবহারের নিয়ম-

১) সাধারণ ত্বকের জন্য চিনি ও লেবুর স্ক্রাব

চিনি ও লেবু দুটোই ত্বকের জন্য উপকারী। লেবু স্কিন টোন হালকা করে, এমনকি বড় রোমকূপ ছোট করে। অন্যদিকে ত্বক এক্সফলিয়েট করতে দারুণ উপকারি চিনি। তা মরা ও শুষ্ক কোষ দূর করে ত্বক থেকে।

উপকরণ

৬ টেবিল চামচ লেবুর রস
২ টেবিল চামচ চিনি

এই দুইটি উপাদান ভালো করে মিশিয়ে ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে ত্বকে মাসাজ করুন। চিনি গলে যাওয়া পর্যন্ত মাসাজ করতে হবে। এরপর কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। রোদেপোড়া ত্বক ও ডার্ক স্পট দূর করতেও এটি কাজে আসে।

২) শুষ্ক ত্বকের জন্য নারকেল তেল, চিনি ও লেবুর স্ক্রাব

শুষ্ক ত্বক এই শীতে আরও শুষ্ক হয়ে ওঠে। স্ক্রাব করার মাধ্যমে তার শুষ্কতা ও রুক্ষতা কমানো যেতে পারে। লেবু ত্বককে নরম করে, অন্যদিকে নারিকেল তেল ত্বককে আর্দ্র রাখে।

উপকরণ

আধা কাপ নারিকেল তেল
১ টেবিল চামচ চিনি
১ টেবিল চামচ লেবুর রস

সবগুলো উপাদান মিশিয়ে মুখে মাসাজ করুন ৮-১০ মিনিট। এরপর মুখ কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

৩) তৈলাক্ত ত্বকের জন্য মধু, বেকিং সোডা ও লেবুর স্ক্রাব

যাদের ত্বক তৈলাক্ত তারা সাধারণ ব্রণের সমস্যায় বেশি ভুগে থাকেন। তাদের জন্য এই লেমন স্ক্রাব কাজে আসে। এই স্ক্রাবটি ত্বককে ভেতর থেকে পরিষ্কার করে। লেবু ব্রণ দূর করে, বেকিং সোডা ন্যাচারাল ক্লিনজার হিসেবে কাজে আসে আর মধু মুখের ত্বকে তেল উৎপাদন কমায়।

উপকরণ

১ টেবিল চামচ লেবুর রস
১ টেবিল চামচ মধু
আধা টেবিল চামচ বেকিং সোডা

এই উপকরণগুলো ভালো করে মিশিয়ে মুখে মাসাজ করুন ৩-৪ মিনিট। এরপর মুখ ধুয়ে ফেলুন ঠাণ্ডা পানি দিয়ে।

সূত্র: এনডিটিভি