ডিমলায় ভুুয়া ঠিকানায় চাকুরীর আবেদনে তদন্তের নির্দেশ

বুধবার, ডিসেম্বর ৫, ২০১৮

নীলফামারী প্রতিনিধি : নীলফামারীর ডিমলায় ভুয়া ঠিকানা দিয়ে রুনিফা আক্তার মায়া নামে কমিউনিটি বেইজড হেলথ কেয়ার (সিবিএইচসি) পদে চাকুরীর অভিযোগে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ।

কমিউনিটি বেইজড হেলথ কেয়ার (সিবিএইচসি) প্রোগাম ম্যানেজার ( প্রশাসন ও অর্থ) ডাঃ মাসুদ রেজা করিব স্বাক্ষরিত স্বারক নং- স্বাঃ অধিঃ/ সিবিএইচসি/ সিবিএইচসি নিঃ/রংপুর বিঃ/অভিঃ-১০৮/২০১৮/২৯০৮ তাং ২/১২/২০১৮ মোতাবেক নীলফামারীর সিভিল সার্জনকে ৭কর্মদিবসের মধ্যে সরেজমিনে তদন্ত করার নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে।

অভিযোগ উঠেছে, ডিমলা উপজেলার টেপাখড়িবাড়ী ইউনিয়নের দক্ষিন খড়িবাড়ী কমিউনিটি ক্লিনিকে স্থানীয় বাসিন্দা না হলেও পাশ্ববর্তী লালমনিরহাট জেলার হাতিবান্ধা উপজেলার সানিয়াযান গ্রামের রফিকুল ইসলাম রফিকের স্ত্রী রুনিফা আক্তার মায়া আবেদন করেন। যাচাই বাচাই না করে একটি প্রভাবশালী মহলের ইন্ধনে লিখিত পরীক্ষায় উক্ত আবেদনকারী মেধা তালিকায় প্রথম হয়।

বিষয়টি প্রতিদ্বন্দী প্রার্থীরা কমিউনিটি বেইজড হেলথ কেয়ারের পরিচালক বরাবরে লিখিত অভিযোগ করেন। রুনিফা আক্তার মায়ার স্বামী রফিকুল ইসলাম রফিক লালমনিরহাট জেলার হাতিবান্ধা উপজেলার পশ্চিম ফকির পাড়া কমিউনিটি ক্লিনিকের সিবিএইচসি হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। টেপাখড়িবাড়ী ইউনিয়নের দক্ষিন খড়িবাড়ী কমিউনিটি ক্লিনিকে স্থানীয় বাসিন্দা ও সিবিএইচসি পদে আবেদনকারী সতেন্দ্র নাথ রায় বলেন, ভুয়া ঠিকানা ব্যবহার করে রুনিফা আক্তার মায়া চাকুরী নেয়ার পায়তারা করছে।

তার স্বামী রফিকুল ইসলাম রফিক হাতিবান্ধা উপজেলার পশ্চিম ফকির পাড়া কমিউনিটি ক্লিনিকের সিবিএইচসি হিসেবে কর্মরত রয়েছেন।