কাজের মহিলার সঙ্গে প্রেম, স্বামীকে ফাঁসিয়ে দিল পোষা তোতা!

প্রাইমনিউসবিডি.কম

বুধবার, নভেম্বর ১৪, ২০১৮

শেখানো কথায় এবার বিপাকে পরেছে এক স্বামী। ঘরে পোষা তোতা পাখিকে কথা শেখানো কাল হয়েছে ওই স্বামীর। বাড়ির পোষা তোতা যে বুলি আওড়ে এমন সর্বনাশ করতে পারে তা কী দুঃস্বপ্নেও ভেবেছিলেন কুয়েতের ওই গৃহস্বামী! তোতা তার স্ত্রীর কাছে ফাঁস করে দিল স্বামীর দুষ্কর্মের কথা। এমনকি এ ঘটনায় জেলে যাওয়ার যোগাড় হল স্বামীর। এমন একটি ঘটনা প্রকাশিত হয়েছে আরব টাইমসে।

আরব টাইমসে প্রকাশিত ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাড়ির পরিচারিকার সঙ্গে লুকিয়ে চুরিয়ে বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে ছিলেন কুয়েতের এক গৃহস্বামী। অনেকদিন থেকেই স্ত্রীর মনে এ নিয়ে সন্দেহ দানা বেধেঁছিল। কিন্তু তেমন যুক্তিযুক্ত প্রমাণ পাচ্ছিলেন না স্ত্রী। গোপনে পরিচারিকার সঙ্গে প্রেমালাপ করতেন ওই মহিলার স্বামী।

এদিকে, তাদের রসালো ওই প্রেমালাপ ‘ঠোঁটস্থ’ হয়ে গিয়েছিল বাড়ির পোষা তোতার। একদিন হঠাৎ করে ওই মহিলার সামনে স্বামী ও পরিচারিকার প্রেমালাপ গড়গড়িয়ে আওড়াতে শুরু করে তোতা পাখিটি।

আর তাতেই ধরা পড়ে গেল স্বামী। পোষা তোতার বুলি শুনে স্ত্রীর আরও সন্দেহ দৃঢ় হয়। এরপর তিনি কুয়েতের হাওয়ালি থানায় স্বামীর বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ দায়ের করেন।

এ বিষয়ে ওই মহিলা বলেছেন, এই জন্যই অফিস থেকে আগে বাড়ি ফিরে এলে তাঁর স্বামী হকচকিয়ে যেতেন।

তবে স্বামীর বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ দায়ের খুব একটা লাভ হয়নি স্ত্রীর।

কারণ পুলিশের বক্তব্য অনুযায়ী, এই মামলায় পাকা প্রমাণ নেই। কেননা, তোতার বুলিকে প্রমাণ হিসেবে আদালতে পেশ করা সম্ভব নয়। টিভি বা রেডিও-তে যে তোতা ওই প্রেমালাপ শেখেনি, তা প্রমাণ করা আদালতে সম্ভব হবে না। কাজেই অল্পের জন্য ওই মহিলার স্বামী রেহাই পেয়ে গেলেন বলে মনে করা হচ্ছে।

সাধারণত, কুয়েতে এ ধরণের ব্যাভিচার নিষিদ্ধ। যে কারণে দোষ প্রমাণ হলে কারাদণ্ড হতো। ওই মহিলার অভিযোগের ভিত্তিতে জেলে হতে পারত স্বামীর।