শেখ হাসিনাকেও আদালতে হাজির করুন : খালেদা জিয়া

বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ৮, ২০১৮

ঢাকা : কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দায়ের করা নাইকো মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানি অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুনানিতে হাসপাতাল থেকে খালেদা জিয়াকে কারাগারে স্থাপিত আদালতে হাজির করা হয়েছিল।

শুনানিকালে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনাকে আদালতে হাজির করতে বলেছেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া।

বৃহস্পতিবার (৮ নভেম্বর) ‍দুপুরে রাজধানীর নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থাপিত ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৯ এর বিচারক মাহমুদুল কবিরের আদালতে এই শুনানি অনুষ্ঠিত হয়।

শুনানিকালে খালেদা জিয়া বলেন, ‘নাইকো চুক্তি করেছিলো শেখ হাসিনার সরকার। আমরা ২০০১ সালে ক্ষমতায় এসে সেই চুক্তির ধারাবাহিকতা রক্ষা করেছি।’

সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও নাইকো দুর্নীতি মামলায় আসামি ছিলেন। কাজেই তাঁকেও এখানে হাজির করুন। তাকে এই আদালতে হাজির করা উচিত। একজনকে সেভ করবেন আরেকজনকে বলি দিবেন এটাতো হয় না।’

‘আদালতে যদি আমি আসি, তা হলে উনাকেও (শেখ হাসিনা) আসতে হবে। কারণ উনি যেই প্রক্রিয়াটা শুরু করেছিলেন, সেটি আমি অব্যাহত রেখেছি।’

এ সময় বিচারক মাহমুদুল কবির বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই মামলার আসামি নন। কাজেই তাঁকে এখানে হাজির করানোর কোনো প্রশ্ন ওঠে না।’

এরপর এ মামলার অন্যতম আসামি ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ তার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের শুনানিতে আত্মপক্ষ সমর্থন করে বক্তব্য দেন। প্রথমে মওদুদ আহমদ আজ শুনানি না করার জন্য আদালতে একটি দরখাস্ত করেছিলেন। কিন্তু আদালত সে দরখাস্ত নামঞ্জুর করে তাকে শুনানিতে অংশ নিতে নির্দেশ দেন।

পরে আদালত মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানি ১৪ নভেম্বর পর্যন্ত মুলতবি করেছেন।

এর আগে বিএনপি চেয়ারপারসনকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতাল থেকে আদালতে নেয়া হয়। দুপুর পৌনে ১২টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিএসএমএমইউ হাসপাতাল থেকে নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে নেয়া হয়।